ভারতের কুৎসিততম ভাষা কন্নড়, কি ক্ষমা চাইলো গুগল

কন্নড়কে ভারতের ‘সবচেয়ে কুৎসিত ভাষা হিসেবে’ দেখানোয় টেক জায়ান্ট গুগলের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার পরিকল্পনা চলছে বলে জানিয়েছে ভারতের কর্নাটক রাজ্য সরকার। গুগলের এমন ঘটনা কর্নাটকসহ গোটা ভারতে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার গুগল সার্চে ‘ভারতের কুৎসিততম ভাষা’ লেখার পর তার ফলাফল হিসেবে কর্নাটক রাজ্যের দাফতরিক ভাষা কন্নড়কে দেখানো হয়। এরপর কন্নড় ভাষাভাষীসহ গোটা ভারতজুড়ে শুরু হয় তীব্র প্রতিক্রিয়া ও সমালোচনা।

কন্নড় ভাষার এমন অপমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখান কর্ণাটকের রাজনৈতিক দলের নেতারা। রাজ্যের বনমন্ত্রী মন্ত্রী অরবিন্দ লিম্বাভলি টুইটে গুগলকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করে বলেন, সার্চ ইঞ্জিনটির ফলাফল কন্নড় ভাষাভাষীদের অপমান করেছে।

অরবিন্দ লিম্বাভলি গুগলকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘কন্নড় ভাষার নিজস্ব ইতিহাস আছে। আড়াই হাজার বছরেরও বেশি সময় ধরে এটি টিকে আছে; এই পুরো সময় ধরে এটি কন্নড় ভাষাভাষীদের অহংকার হয়ে আছে।’

তীব্র সমালোচনার মুখে এ সংক্রান্ত সার্চে গুগল বিষয়টি সংশোধন করে ফেলে। পরে বৃহস্পতিবারই মার্কিন এই টেক জায়ান্ট বিবৃতি দিয়ে এই ঘটনাকে ‘ভুল বোঝাবুঝির বিষয়’ হিসেবে অভিহিত করে ‘কারো অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ায়’ ক্ষমা প্রার্থনা করে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password