ত্বক সুন্দর রাখার গোপন টিপস।

ত্বকে ব্রণ, কালো দাগ দেখলে মন খারাপ হয়? নিজের প্রতি একটু উদাসীন হলেই আর রক্ষা নেই। ত্বকে নানা সমস্যা এসে হানা দেবেই! তাই ত্বকের দাগ-ছোপ নিয়ে মন খারাপ না করে সবার আগে নিজের প্রতি যত্নশীল হোন।


শুধু রূপচর্চা নয়, বরং ত্বক ভালো রাখার জন্য খেয়াল রাখতে হবে আরও অনেক দিকে। সেই তালিকায় প্রথমেই আসে খাবারের নাম। এরপর ত্বক পরিষ্কার করা, পর্যাপ্ত পানি পান করা, মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকা এসব বিষয়ও রয়েছে। দিনের শুরুতে কিছু কাজ রয়েছে যা নিয়মিত করতে পারলে আপনার সুন্দর ত্বক পেতে আর বাঁধা থাকবে না।


চলুন জেনে নেয়া যাক, ত্বক সুন্দর রাখতে দিনের শুরুতে যে কাজগুলো করবেনঃ 

নাস্তা হোক ভরপুরঃ 

অনেকেই সকালের খাবারটা এড়িয়ে যেতে চান। যদিও বা খান, তাড়াহুড়ো করে মুখে কিছু একটা পুরে দিয়েই দেন ছুট। কিন্তু এভাবে চলতে থাকলে শুধু ত্বক নয়, আপনি নিজেও অসুস্থ হয়ে যাবেন। আপনি যদি ভেতর থেকে সুস্থ না থাকেন তবে বাইরে থেকে যত্ন নিয়ে উপকার মিলবে না। তাই প্রতিটি সকালের খাবার হোক পরিপূর্ণ। সুষম খাবার তুলে নিন পাতে। রাতের সময়টা আমাদের পেট পুরোপুরি খালি থাকে তাই দিনের শুরুতে হজম খুব দ্রুত হয়। সকালের খাবারটা তাই কোনোভাবেই বাদ দেয়া চলবে না। প্রতিদিন সকালে একটি করে ডিম খাওয়ার অভ্যাস করুন। ডিমে অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের পাশাপাশি আছে ভিটামিন বি। এই ভিটামিন আমাদের ত্বকে নতুন টিস্যু জন্মাতে সহায়তা করে। ফলে ত্বকে সহজে বয়সের ছাপ পড়ে না।


পর্যাপ্ত পানি পান জরুরিঃ 


সুস্থ ও সুন্দর ত্বকের জন্য পর্যাপ্ত পানি পান করা জরুরি। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে একগ্লাস হালকা গরম পানি পান করতে পারলে মিলবে অনেক উপকার। এটি আপনার শরীরে জমে থাকা টক্সিন দূর করতে সাহায্য করবে। বাড়ি থেকে বের হওয়ার আগে পর্যাপ্ত পানি পান করে বের হবেন। সম্ভব হলে সঙ্গে একটি পানির বোতল রাখুন। তৃষ্ণা পেলে কোমল পানীয় নয়, বিশুদ্ধ পানি পান করুন।


ম্যাসাজের উপকারিতাঃ


সকালের ব্যস্ত সময়ের ভেতর থেকেই খানিকটা সময় বের করে নিন। সেই সময়টুকু ব্যয় করুন ফেস ম্যাসাজে। আঙুলের ডগা দিয়ে মুখ ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন অন্তত দুই মিনিট। এই দুই মিনিটের ম্যাসাজই মুখের রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করবে। ফলে মুখের ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। এক টুকরো বরফ একটি সুতির কাপড়ে জড়িয়েও মুখে ম্যাসাজ করতে পারেন।


গোলাপজলের ব্যবহারঃ


ত্বক সুন্দর করতে গোলাপজল বেশ কার্যকরী। ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের আগে সামান্য গোলাপজল স্প্রে করে নিন। এর ফলে ত্বক পাবে বাড়তি আর্দ্রতা। আপনি যদি মুখে কোনোরকম মেকআপ ব্যবহার করেন তাও সহজে সেট হবে।


চোখের ফোলাভাব কমাতেঃ


ঘুম ভাঙার পরে অনেকেরই চোখে ফোলাভাব দেখা যায়। মনে হয় ঘুম পুরোপুরি হয়নি। চোখের কোল ফুলে থাকলে তা দেখতে ভালোলাগে না নিশ্চয়ই। এরকম সমস্যার ক্ষেত্রে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে ঠান্ডা টি ব্যাগ। একটি ব্যবহৃত টি ব্যাগ ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নেবেন। এরপর সেই টি ব্যাগ চোখের কোলে রেখে দিন কিছুক্ষণের জন্য। এতে করে চোখের ফোলাভাব কমবে অনেকটাই।


এসব উপায় ব্যাবহার করলে আশা করা যায় আপনার ত্বক সুন্দর থাকবেই।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password