তাবিথ আউয়ালের প্রার্থিতা বাতিলের রিট খারিজ

নির্বাচনী হলফনামায় সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ এনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে করা রিট খারিজ করে দেওয়া হয়েছে।

যে নথির ভিত্তিতে রিটে তার প্রার্থিতা বাতিল চাওয়া হয়, তা এ পর্যায়ে যাচাই করা সম্ভব নয় উল্লেখ করে রিটটি খারিজ করে দেওয়া হয়। ফলে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনে আর কোনো বাধা নেই তাবিথের।

সোমবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে শুরু করে ১ ঘণ্টা ৫০ মিনিটের মতো শুনানির পর হাইকোর্টের বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট কামরুল হক সিদ্দিকী। অন্যদিকে তাবিথ আউয়ালের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রুকন উদ্দিন মাহমুদ ও খায়রুল আলম চৌধুরী।

নির্বাচন কমিশনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার ড. মো. ইয়াসিন খান। উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী, ব্যারিস্টার এএম মাহাবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট ফাহিমা নাসরিন মুন্নি ও ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান।

এর আগে নির্বাচনী হলফনামায় সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়।

রোববার (২৬ জানুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দীন চৌধুরী মানিক এই রিট আবেদন করেন। রিটে নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়।

এরও আগে, গত ২৩ জানুয়ারি বিকেলে নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলামের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তাবিথের প্রার্থিতা বাতিলের দাবি জানান শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক। এ সময় তিনি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবর এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ জমা দেন।

রিট দায়েরের পর সাবেক এই বিচারপতি সাংবাদিকদের বলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দেওয়ার পরও নির্বাচন কমিশন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলেই তিনি আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন