আবারো গাজায় হামাসের ঘাঁটিতে বিস্ফোরণে ২ যোদ্ধা নিহত

বুধবার(২ জুন) দুপুরে গাজা উপত্যকায় ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের একটি ঘাঁটিতে ইসরাইলের একটি সন্দেহজনক বস্তু বিস্ফোরিত হলে, দুই যোদ্ধা নিহত হন। ফিলিস্তিনের সূত্র জানিয়েছে, নিহত দুই যোদ্ধা হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন কাসসাম ব্রিগেডসের সদস্য ছিলেন।

‘ফিলিস্তিন আলআন’ বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, সাম্প্রতিক গাজা যুদ্ধে হামাসের ঘাঁটিতে ইহুদিবাদী ইসরায়েলের বোমাবর্ষণের সময় অবিস্ফোরিত একটি সন্দেহজনক বস্তু নিষ্ক্রিয় করছিল হামাসের বিশেষজ্ঞ টিম। বুধবার দুপুরে সন্দেহজনক বস্তুটি বিস্ফোরিত হলে, কাসসাম ব্রিগেডের ওই দুই যোদ্ধা নিহত হন। নিহত দুই যোদ্ধার নাম ওসামা ফজল জুনাইনা ও আহমাদ জাকি আবু হুসাইরা।

আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর ইসরায়েলি সেনাদের ব্যাপক দমন অভিযানের প্রতিবাদে গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েল অভিমুখে রকেট নিক্ষেপ শুরু করে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো। তারপর দখলদার ইসরায়েল ১২ দিন ধরে গাজা উপত্যকার বিমান হামলা চালায়। এই বিমান হামলা শুরু করার সঙ্গে সঙ্গে গাজা থেকে ইসরায়েলের বিভিন্ন শহর লক্ষ্য করে হাজার হাজার রকেট নিক্ষেপ করে হামাস ও ইসলামি জিহাদ আন্দোলনসহ অন্যান্য প্রতিরোধ সংগঠনগুলো।

ফিলিস্তিনি সংগঠনগুলো এই ১২ দিনে জেরুজালেম, তেল আবিব এমনকি দূরবর্তী হাইফা শহরে চার হাজারেরও বেশি রকেট নিক্ষেপ করে ইহুদিবাদীদের বিরুদ্ধে। ফিলিস্তিনিদের রকেটের পাল্লা ও নিখুঁতভাবে আঘাত হানার ক্ষমতা দেখে তেল আবিব ১২ দিনের মাথায় যুদ্ধবিরতি মেনে নিতে বাধ্য হয়।

এবার ইসরাইলে ক্ষমতাধীন প্রধানমন্ত্রীকে সরাতে আবার গঠিত হচ্ছে নতুন জোট সরকার নির্বাচন। তাই পরবর্তীতে ফিলিস্তিত-ইসরাইল যুদ্ধ কিরূপ নিবে তা ধারণা করা যাচ্ছেনা।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password