চরফ্যাশনে জমি দখলের চেষ্টা- আটক ২

চরফ্যাশনে জমি দখলের চেষ্টা- আটক ২

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার চরকলমী ইউনিয়নের নাংলাপাতা গ্রামে অন্যের বসত ঘর ভেঙ্গে ভিটা দখলের চেষ্টার অভিযোগে ইদ্রিস চৌকিদারের ছেলে মো.বাবু ও ইউনুসের ছেলে জসিমকে আটক করেছে শশীভূষণ থানা পুলিশ। গৃহকর্তা নাসির মিয়া বাদী হয়ে মো.হাসানসহ নিদৃষ্ট ৬ জন এবং অজ্ঞাত আরো ৪/৫জনকে আসামী করে বৃহস্পতিবার রাতে শশীভূষণ থানা এজাহার দাখিলের পর ওই রাতেই তাদেরকে আটক করা হয়েছে বলে থানা সুত্রে জানাগেছে।

বাদী নাসির মিয়ার দায়েরকৃত এজাহার সুত্রে জানাগেছে, নাসির মিয়া দির্ঘ ২৫-২৬ বছর বাড়িটিতে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন। তিনি পুর্বে যে ভিটিতে বসবাস করতেন বিগত ৩-৪বছর আগে ওই ভিটির পাশে তার নিজের জায়গায় একটি ওয়ালসেট ঘর নির্মান করে উক্ত ঘরে বস বাস করেন এবং পুর্বের টিনসেট ঘরটি রান্না ঘর হিসেবে ব্যবহার করে আসছেন। প্রতিপক্ষ তার চাচা ইদ্রিস চৌকিদার এবং চাচাতো ভাই হাসান,বাবু,আলম ওই জায়গাটি তাদের দখলে নিতে ওয়ারিশি সম্পত্তির কিছু অংশ দাবী করে তার সাথে ঝামেলা করে আসছেন।

বুধবার চাচা ও চাচাতো ভাইরা বহিরাগত কিছু লোক নিয়ে তাদের ব্যবহৃত ওই ঘরটি ভেঙ্গে ভিটি দখলের চেষ্টাকালে তিনি এবং তার স্ত্রী রাসিদা বেগম বাধা দিলে অভিযুক্তরা তাদেরকে বেদরক মারধর করে আহত করে। এঘটনায় তিনি শশীভূষণ থানায় এজাহার দায়ের করেছেন। অভিযুক্তরা ঘর ভাংচুরের পর ঘরে থাকা নগদ টাকা ও স্বর্নালংকার নিয়ে গেছে বলেও বাদী এজাহারে উল্লেখ করেছেন।

অভিযুক্ত ইদ্রিস চৌকিদার বলেন, নাসির ঘর করে ২১বছর আমার জায়গা দখল করে রেখেছে। আমি আমার জায়গা থেকে তার ঘর ভেঙ্গে দিয়েছি। শশীভূষণ থানার ওসি মিজানুর রহমান পাটোয়ারী জানান, অভিযুক্তরা আইনী আশ্রয় না নিয়ে নিজেরাই বিরোধীয় ঘর ভেঙ্গেছে। বাদীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২জনকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্যসমূহ (০)