স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সকল স্তরে দলীয় প্রতীক বাতিল চায় বাংলাদেশ যুব শক্তি

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সকল স্তরে দলীয় প্রতীক বাতিল চায় বাংলাদেশ যুব শক্তি

গণনেতৃত্ব বিকাশে ও দলীয় প্রতীক নিয়ে হানহানি এবং ভোটের নামে প্রহসন বন্ধ করতে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের সকল স্তরে দলীয় প্রতীক বাতিল করে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রতীক নির্বাচন করার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ যুব শক্তি । আজ ১৯ নভেম্বর ২০২১ শুক্রবার সকাল ১০ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ যুব শক্তি আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এ দাবি জানান।

প্রধান অতিথীর বক্তব্যে যুব শক্তি সভাপতি জিয়াউর রহমান বলেন, দলীয় প্রতীক পাওয়ার জন্য প্রাথীরা লবিং করে তদবির করে অনৈতিক অর্থ লেনদেন করে, দলগুলো অঘোষিত মার্কা বাণিজ্য করে, পরে এই অর্থ উত্তোলনে বিজয় প্রতিনিধিরা দুর্নীতির আশ্রয় নেয়। সরকার দলীয় প্রার্থীরা দলীয় প্রতীক পেলে নিজেকে প্রাথমিক বিজয় মনে করে, এটা ভোটাদের প্রতি এক ধরনের অবমাননা।

সরকার দলীয় প্রার্থীরা সব নিয়ম কানুনকে তুচ্ছ করে এবং সরকার দলীয় মার্কার প্রতি প্রশাসনের দুর্বলতা থাকে। দলীয় প্রতীকের কারনে হানাহানি হচ্ছে সামাজিক ভাতৃত্ববোধ নষ্ট হচ্ছে সভাপতির বক্তব্যে শিহাব উদ্দিন বলেন জনগণের প্রতি আহ্বান স্বাধীনতার ৫০ বছর যাবৎ সব দলই কম-বেশি জনগণের ভোটাধিকার লুন্ঠন করেছে, যে সব দল আমাদের ভোটাধিকার হরণ করেছে তাদের মনোনীত প্রার্থীকে ভোট দিবেন না।

তাদের প্রতাখ্যান করে সমাজের নিবেদিত যে সকল স্বতন্ত্র প্রার্থী থাকবে তাদের ভোট দিন। ভোট প্রত্যেক নাগরিকের নাগরিক অধিকার। দলীয় প্রতীক বাতিল এবং ভোটাধিকার ও কার্যকর গণতন্ত্রের জন্য যুব শক্তির প্রধান সম্মনয়ক হানিফ বাংলাদেশী ভোটাধিকার রক্ষায় দেশব্যাপী মার্চ ফর ডেমোক্রেসি পালন করছেন এখন ভোটের বাক্স মাথায় নিয়ে সারাদেশ ঘুরছেন।

সরকার যদি দলীয় প্রতীক বাতিল না করে আমরা আরো জোরালো কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো। মানববন্ধন উপস্থিত ছিলেন ইকবাল আমীন, এড মীর মোজাম্মেল হোসেন মিলন, মো দেলোয়ার হোসেন,শেখ নাসির উদ্দীন, এন ইউ আহম্মেদ, মিকা রহমানসহ যুব শক্তির নেতৃবৃন্দ।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password