টানা চার দিন ধরে একক পদযাত্রা করছেন হানিফ বাংলাদেশি

সীমান্ত হত্যা বন্ধের দাবিতে প্রতীকী লাশ কাধে নিয়ে টানা চার দিন ধরে একক পদযাত্রা করছেন হানিফ বাংলাদেশি। গন্তব্য কুড়িগ্রামের অনন্তপুর সীমান্ত। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) পদযাত্রার চতুর্থ দিনে তিনি গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর এসে পৌঁছান।মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টায় পুনরায় কালিয়াকৈর থেকে তিনি মির্জাপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন বলে জানিয়েছেন। গত শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে শুরু হয় হানিফের এই প্রতিবাদী যাত্রা।

পদযাত্রা সম্পর্কে হানিফ বাংলাদেশি বলেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত প্রতিবেশী ও বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র। আমরা চাই ভারত প্রতিবেশীর সঙ্গে মানবিক আচরণ করুক। কিন্তু প্রতিনিয়ত ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) নিরীহ বাংলাদেশিদের হত্যা করছে। অপরাধী হলে তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করা হোক। কিন্তু তা না করে নির্বিচারে গুলি চালানো হচ্ছে। দেশে যখন যে দল রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসেছে তারা সমস্যার সমাধান না করে ভারতের তোষামোদি করেছেন।’

তিনি অভিযোগ করেন, ‘এই সরকারের ১২ বছরের শাসন আমলে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে, এমনকি বাংলাদেশ ভূখণ্ডের অভ্যন্তরেও অনুপ্রবেশ করে প্রায় ৫০০ জন বাংলাদেশিকে হত্যা করেছে বিএসএফ।’এসময় তিনি অবিলম্বে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে বাংলাদেশের নাগরিকদের হত্যা বন্ধের দাবি জানান। এছাড়া সরকারকে বহুমাত্রিক কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানান।

মন্তব্যসমূহ (১)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন