এমন নোটিশ দেখে জেনো প্রান জুরিয়ে জায়

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে একযোগে লড়াইয়ে নেমেছে সারাবিশ্ব। সম্প্রতি নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সুবিধার্থে বাড়ির মালিকদের তিন মাসের ভাড়া না নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে উগান্ডার সরকার। বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনার থাবা পড়লেও এখনো বাদিভাড়া মওকুফ নিয়ে কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি।

বাংলাদেশে এমন কোনো ঘোষণা না এলেও ব্যক্তি উদ্যোগে সামান্য কিছু মানুষ ঠিকই এগিয়ে এসেছেন। যেমন শেখ শিউলী হাবিব। ঢাকা শহরে তার একটা বাড়িতে বসবাসরত ভাড়াটিয়াদের মার্চ মাসের ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছেন তিনি।সার্বিক পরিস্থিতিতে মানবিক দিক বিবেচনা করে ব্যতিক্রমি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনার পরিবারও।

করোনার কারণে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়ছে দেশের সার্বিক অর্থনীতিতে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির ঘটনারও খবর আসছে। আর এসব বিবেচনা করে চলতি মাসে ভাড়াটিয়াদের বাড়ি ভাড়া মওকুফ করে দিচ্ছেন অভিনেত্রী ভাবনার পরিবার।

তাদের মালিকানায় রাজধানীর হাজারীবাগ এলাকায় ৬ তলা বাড়িতে ছয়টি পরিবার ভাড়া থাকেন। বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে তাদের কাছ থেকে মার্চ মাসের ভাড়া না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

মানুষ যেকোনো সংকট সময়ে মানবিকতা আর উদারতার পরিচয় দিয়ে এসেছে। যতো সংকটই ধেয়ে আসুক, তা মোকাবেলা করতে এগিয়ে এসেছে মানুষই। দুর্যোগেও ত্রাতা মানুষই।

কিন্তু তারপরেও কখনো কখনো দুর্যোগকে পুঁজি করে অসাধু একটি শ্রেণি ফায়দা নেয়ার ধান্দায় থাকে। করোনা পরিস্থিতিতেও এমন সুযোগসন্ধানী ব্যবসায়ীদের কত খবরই তো আমাদের কানে আসছে। তাদের ব্যবস্থা তো দেশের মানুষ, কর্তৃপক্ষ তো অবশ্যই করবে। কিন্তু আমরা ব্যক্তিগত উদ্যোগে নিজের জায়গা থেকে তো একটু উদার হতেই পারি। এই সামান্য উদারতা তো অন্যদের অনেকখানি প্রশান্তি এনে দিতে পারে। এটাই তো নিজের কাছ সবচেয়ে বড় প্রশান্তি।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন