প্রেমের ফাঁদে পা দিয়ে অপহরণ যুবক, আটক ছয়

প্রেমের ফাঁদ পেতে অপহরণকারী চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। কুমিল্লায় মোবাইলে প্রেমের ফাঁদ পেতে ডেকে নিয়ে ইয়াছিন নামে এক যুবককে অপহরণের পর মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ উঠেছে। 

রোববার দুপুরে নগরীর টমছম ব্রিজ এলাকা থেকে অপহরণের পর সন্ধ্যায় গোবিন্দপুর এলাকার একটি ভবন থেকে অপহৃত যুবককে উদ্ধার ও ওই ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। 

সোমবার আদালতের মাধ্যমে অপহরণকারী চক্রের সদস্য তিন নারী এবং তিন পুরুষকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার দিশাবন্দ এলাকার সাহেব আলীর ছেলে জুম্মন মিয়া, ঝাকুনিপাড়া এলাকার মোস্তফার ছেলে রাসেল, নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার কানু মিয়ার ছেলে মাহবুব মিয়া, সংরাইশ এলাকার আলমের স্ত্রী আরজু বেগম, নূরপুর এলাকার সুমনের স্ত্রী সেলিনা আক্তার, নবগ্রাম এলাকার মো. সুমনের স্ত্রী জোৎনা বেগম। 

অভিযানে নেতৃত্বে থাকা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) এলআইসি টিমের উপপরিদর্শক (এসআই) পরিমল চন্দ্র দাস পিপিএম বলেন, "ওই অপহরণ চক্রের নারী সদস্য পূবপরিকল্পিতভাবে ইয়াছিনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন এবং কুমিল্লা শহরে এসে দেখা করার অনুরোধ করেন"। 

রোববার সকাল ১০টার দিকে ইয়াছিন ব্যক্তিগত কাজে কুমিল্লা নগরীতে এলে টমছম ব্রিজ থেকে কৌশলে তাকে ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়।পরবর্তী সময় তারা ইয়াছিনের স্বজনদের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করে। 

ডিবির ওসি আনোয়ারুল আজিম জানান, "রোববার সকাল ১০টার দিকে রঙমিস্ত্রি ইয়াছিন কুমিল্লা নগরীতে এলে টমছম ব্রিজ এলাকা থেকে মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের সদস্যরা তাকে অপহরণ করে। পরে তারা ইয়াছিনের স্বজনদের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করে। বিষয়টি জেলা ডিবি পুলিশকে অবগত করলে অভিযান শুরু করা হয়"। 

সন্ধ্যায় নগরীর গোবিন্দপুর এলাকার খন্দকার ভিলা থেকে ইয়াছিনকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় আপহরণকারী চক্রের নারী-পুরুষসহ ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

এ ঘটনায় অপহরণের মামলা শেষে তাদের কোতোয়ালি মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password