লাইফ সাপোর্টে আছেন গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর

লাইফ সাপোর্টে আছেন গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর

রবিবার (১৯ জুলাই) রাতে গণমাধ্যমকে গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীরের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে তথ্য দেন তার ছেলে মাশুক আলমগীর রাজীব।

করোনায় আক্রান্ত দেশবরেণ্য গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীরের শারীরিক অবস্থার অবণতি হয়েছিলো। বাবার জন্য দোয়া চেয়ে মাশুক বলেন, রাত ১০টার আগে বাবার অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৪৫–এ নেমে আসে। এরপর চিকিৎসকেরা তাকে দ্রুত ভেন্টিলেশনে নেওয়ার পর থেকে বাবার অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৯০–এ উন্নীত হয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, ফকির আলমগীরের ফুসফুস ৬০ শতাংশ সংক্রমিত হয়েছে। যে কারণে নল দিয়ে তাকে তরল খাবার দিতে হচ্ছে।

এদিকে গত দুদিন ধরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফকির আলমগীরের মৃত্যুর গুজব ছড়ানো হচ্ছে। এ নিয়ে গত শুক্রবার শিল্পীর স্ত্রী সুরাইয়া আলমগীর জানিয়েছিলেন, ফকির আলমগীর বর্তমানে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি আছেন। গুজবে কেউ কান দেবেন না। আইসিইউতে থাকলেও তার চেতনা আছে।

পাশ্চাত্য সংগীতের সঙ্গে দেশজ সুরের মেলবন্ধন ঘটিয়ে বাংলা পপ গানের বিকাশে ভূমিকা রেখেছেন ফকির আলমগীর। এর মধ্যে ‘ও সখিনা’ গানটি এখনো মানুষের মুখে মুখে ফেরে। ১৯৮২ সালের বিটিভির আনন্দমেলা অনুষ্ঠানে গানটি প্রচারের পর দর্শকের মধ্যে সাড়া ফেলে যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর করা ফকির আলমগীর গানের পাশাপাশি নিয়মিত লেখালেখিও করতেন।

আজ এ মানুষটি প্রায় মৃত্যুশয্যায় তবে এখনো হেরে যাননি তিনি। মাশুক আলমগীর জানিয়েছেন, ফকির আলমগীরের জন্য যে প্লাজমা দরকার ছিল তা শুক্রবার রাতে পাওয়া গেছে। তার বাবার শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকেও ছিলো এবং শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিজেই হেঁটে বাথরুমে গিয়েছেন। তবে দুদিন পর হঠাৎই শারীরিক অবস্থার ফের অবনতি ঘটল।

তবে এখনো আশা শেষ হয়নি, খুব দ্রুতই সুস্থ হয়ে যাবেন বলে আশাবাদী সকলেই।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password