রসগোল্লাকে করোনার পথ্য বলেছেন বিশেষজ্ঞরা

রসগোল্লা এখন কদর পাচ্ছে এক অন্যরকম ভূমিকায়। করোনা রোগীদের পথ্য হিসেবে নাম এসেছে রসগোল্লার। ডাক্তাররা বলছেন, দ্রুত রোগমুক্তি চাইলে ছানার রসগোল্লার জুড়ি নেই।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রসগোল্লা তৈরি হয় ছানা থেকে। এতে প্রোটিনের পরিমাণ তাই অনেক বেশি থাকে। এছাড়া যেহেতু ছানা আর চিনি ছাড়া অন্য কোনো উপাদান নেই, তাই এটি সহজপাচ্যও।

ভারতের প্রখ্যাত ডাক্তার প্রণব বাজপেয়ি বলেন, করোনা রোগীর অধিক প্রোটিন দরকার। নিরামিষাশীদের জন্য রসগোল্লার মতো ভালো পথ্য আর নেই। কারণ একটি ছোট রসগোল্লার প্রোটিন দু’টি রুটির সমান। কোনো দুর্বল করোনা রোগীর পক্ষে তিন বেলা চারটে করে ১২টি রুটি খাওয়া কঠিন হলেও একদিনে ছয়টি রসগোল্লা অনায়াসে খেতে পারেন তারা। রসগোল্লা খেয়ে করোনা রোগীরা দ্রুত আরোগ্য লাভ করছেন, এমনটাই জানিয়েছেন ওই চিকিৎসক। এছাড়া হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ হুসেন আখতার জানান, স্বাদ ও গন্ধহীন করোনা রোগীর প্রয়োজনীয় ক্যালোরি জোগাতে সক্ষম রসগোল্লা।

ডাক্তাররা বলেন, রসগোল্লা করোনা সারায় না ঠিকই তবে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে এই মিষ্টি দ্রুত আরোগ্যের পথ দেখাচ্ছে। মূলত তার কারণগুলো হলো_

রসগোল্লা হজমে সাহায্য করে। এবং ওজন কমাতেও ভূমিকা আছে রসগোল্লার। এতে ম্যাগনেশিয়াম থাকায় শর্করা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া ছানায় থাকা পটাশিয়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে। 

মিষ্টি বলতে বাঙালীর প্রথম পছন্দ কিন্তু রসগোল্লাই। স্বাদ ও স্বাস্থ্যের বিচারে বাংলার সাদা রসগোল্লা একাই একশো। আর শুধু সুস্বাদেই নয়, বাংলার রসগোল্লা তার পুষ্টিগুণেও দিন দিন মন কেড়ে নিয়েছে দেশের মানুষের।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password