নওগাঁ সাপাহারে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলায় ৭ বছর বয়সী এক কন্যা শিশুকে শয়ন ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। আহত অবস্থায় ওই কন্যা শিশুটিক নওগাঁ জেলার সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁর সাপাহার উপজেলার গোয়ালা ইউনিয়নে। এ ঘটনায় ওই কন্যা শিশুর পিতা বাদী হয়ে ওই গ্রামের ইমামুল হক (৪০) নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মানিক হোসেন জানান, গত ২৬ মে বুধবার উপজেলার গোয়ালা ইউনিয়নের সামসুদ্দীনের ছেলে ইমামুল হকের ৪ বছর বয়সী বাচ্চার সাথে খেলা করার জন্য প্রতিবেশীর ৭ বছর বয়সী এক কন্যা শিশু তার বাড়িতে যায়।

এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় সুযোগ বুঝে ইমামুল হক ওই কন্যা শিশুকে তার নিজ শয়ন ঘরে নিয়ে গিয়ে জোরপুবক ধর্ষণ করে। এ সময় ওই কন্যা শিশুর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হলে তাকে বিছানায় ফেলে রেখে ধর্ষক পালিয়ে যায়। যৌ’ন নির্যাতনের শিকার ওই কন্যা শিশু পরে নিজ বাড়িতে ফিরে এসে তার পরিবারের লোকজনের নিকট ঘটনা প্রকাশ করে।

বিষয়টি নিয়ে গত ৩১ মে সোমবার ওই কন্যা শিশুর বাবা বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৭/৭৩, তারিখ ৩১ মে ২০২১। ধারা ২০০০ সালের নারী শিশু নির্যাতন দমন আইন ৯ (১)।

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার জানান, বিষয়টি নিয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আসামি পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে গ্রেফতারের জোর প্রক্রিয়া অব্যহত রয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password