আবারো আল আকসায় মুসলিমদের প্রবেশে বাধা

আবারো আল আকসায় মুসলিমদের প্রবেশে বাধা

ইসরায়েলি সেনারা আবারও ফিলিস্তিনের আল আকসা মসজিদে মুসলিমদের প্রবেশে বাধা দিয়েছে। এ সময় তারা মুসল্লিদের ওপর টিয়ার গ্যাস, রবার বুলেট নিক্ষেপ করে। একই সঙ্গে ইসরায়েলি বাহিনী হাজারখানেক ইহুদিকে জোরপূর্বক আল হারাম আল শরিফে প্রবেশ করায়। মুসলিমদের তৃতীয় পবিত্রতম স্থান আল আকসা মসজিদে এ অভিযানের সময় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে ইসরায়েলি সেনারা কয়েকজন ফিলিস্তিনিকে মারধরও করেন।

আটকও করা হয় কয়েকজনকে। এদিকে আল আকসা মসজিদে হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ। ফিলিস্তিনের এ অংশটি দেশটির পশ্চিমতীর শাসন করছে। এক বিবৃতিতে তারা বলছে, সেনাদের এই আগ্রাসনের পুরোটা দায় নিতে হবে ইসরায়েল সরকারকে। একই সঙ্গে আল হারাম আল শরিফে ইহুদিদের জোরপূর্বক প্রবেশকে ওই অঞ্চলের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবেও দেখছে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ। যদিও ইসরায়েলি বাহিনীর দাবি- হামলার আগে কয়েকজন ফিলিস্তিন যুবক তাদের লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করেছিল।

এদিকে ইসরায়েলি হামলায় পাল্টা হুশিয়ারি দিয়েছে হামাস। একই সঙ্গে হামলা ঠেকাতে সব ফিলিস্তিনিকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। সৌদি আরবের মক্কার মসজিদুল হারাম ও মদিনার মসজিদে নববীর পর মুসলমানদের কাছে পবিত্র স্থান জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদ।

খ্রিস্টপূর্ব ১০০৪ সালে মসজিদটি পুনর্নির্মাণ করেন হজরত সোলায়মান আলাইহি ওয়াসাল্লাম। দুটি বড় ও ১০টি ছোট গম্বুজবিশিষ্ট মসজিদটিতে প্রকাশ পেয়েছে নির্মাণশৈলীর এক মনোমুগ্ধকর প্রতিচ্ছবি। বিভিন্ন সময়ে মসজিদটি সংস্কারে ব্যবহার করা হয় মার্বেল, স্বর্ণসহ নানা ধরনের মূল্যবান ধাতু ও পাথর। এটিকে মুসলমানদের পবিত্র স্থান হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে ইউনেস্কো।

সূত্র: আলজাজিরা।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password