রেল স্টেশনে তরুণীকে হেনেস্তাকারী নারী গ্রেপ্তার

রেল স্টেশনে তরুণীকে হেনেস্তাকারী নারী গ্রেপ্তার

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদী রেলস্টেশনে আধুনিক পোশাকের অজুহাতে এক তরুণীকে হেনেস্তার ঘটনার মূল হোতা শিলা আক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। সোমবার বেলা ১১টার দিকে র‌্যাব-১১ নরসিংদীর ক্যাম্প কমান্ডার ফ্লাইট লেফটেন্ট তৌহিদুল মুবিন খান এ তথ্য জানান। র‌্যাব-১১ সূত্রে জানা যায়, স্টেশনে তরুণীকে লাঞ্ছিতের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হলে অভিযুক্ত শিলা আক্তার ওরফে শায়লা আত্মগোপনে চলে যান ।

পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শিবপুর উপজেলার ইটাখলো এলাকায় শিলার খালার বাসায় অভিযান চালিয়ে রাত ৩টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযুক্ত শিলা আক্তার নামে পরিচিত হলেও তার মূল নাম মারজিয়া আক্তার। এর আগে ২৫ মে সকালে নরসিংদী রেলস্টেশনের ১নং প্লাাটফর্মে ঢাকাগামী চট্রগ্রাম মেইল ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করছিলেন দুই তরুণ ও এক তরুণী। মেয়েটির পরনে ছিল জিন্স প্যান্ট ও টপস। তাই দেখে স্টেশনে অবস্থানরত এক নারী প্রথমে ওই তরুণীকে আঘাত করেন।

পরে আরও কয়েকজন ব্যক্তি তার ওপর হামলার চেষ্টা চালায়। ভুক্তভোগী ওই তরুণী দৌড়ে স্টেশন মাস্টারের কক্ষে আশ্রয় নিয়ে তাকে বাঁচানোর অনুরোধ করেন। পরে স্টেশন মাস্টারের মধ্যস্থতায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তাদেরকে ঢাকাগামী চট্টগ্রাম মেইল ট্রেনে তুলে দেয়া হয়। তরুণীকে হেনস্তা ও মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার সুবাধে জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হলে টনক নড়ে সংশ্লিষ্টদের।

এতে প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হলে ঘটনার দুদিন পর শুক্রবার রাতে নরসিংদী শহরের ইউএমসি জুট মিলের সামনে থেকে ইসমাইল মিয়া নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশ। পরে তাকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে নরসিংদীর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ সিদ্দিকীর আদালতে শোপর্দ করা হয়।

ওই রাতেই নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইমায়েদুল জাহেদী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভৈরব রেলওয়ে থানায় মামলা করেন। মামলার এজাহারে এক নারীসহ দুজনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে এবং অজ্ঞাত আরও এক নারী ও ১০ পুরুষকে আসামি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ও মুঠোফোনে ধারণ করা ভিডিওতে অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর তাদের আসামি করা হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)