বিদ্যুতের খুঁটির সাথে পেঁচিয়ে পুঁতে রাখা নারীর লাশ উদ্ধার

বিদ্যুতের খুঁটির সাথে পেঁচিয়ে পুঁতে রাখা নারীর লাশ উদ্ধার
Crickex Sign Up

রংপুরের পীরগাছার একটি দোলায় বিদ্যুতের খুঁটির চতুর্পাশে পুঁতে রাখা অবস্থায় একজন নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে তার পরিচয় শনাক্ত না হলেও ওই নারীর বয়স ২৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। পুলিশের ধারণা অন্যকোনো স্থানে ধর্ষণের পর তাকে হত্যা করে লাশ গুম করতে চেয়েছিল দুর্বৃত্তরা।

পরিচয় শনাক্তে প্রয়োজনীয় আলামত সংগ্রহ করেছে পুলিশ। রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সি-সার্কেল) আশরাফুল আলম পলাশ জানান, সোমবার (২৫ জুলাই) সকাল ১০টায় খবর পেয়ে ঘটনাস্থল উপজেলার সদর ইউনিয়নের তালুক ইসাদ নয়াটারি দোলায় আকবর আলীর আমনের জমিতে থাকা বিদ্যুতের খুঁটির চতুর্পাশে প্রায় দুই ফুট মাটির নীচ থেকে ভাজ করে পুঁতে রাখা অবস্থায় একজন নারীর লাশ উদ্ধার করি।

ওই নারীর বয়স আনুমানিক ২৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। তবে তার মাথার চুল ন্যাড়ার পাশাপাশি ভ্রু উঠানো ছিল, যাতে ওই নারীর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া না যায়, সেজন্যই সম্ভবত দুর্বৃত্তরা তার শরীরে এই বিকৃতি ঘটিয়েছে। পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, বেলা ৩টায় ওই নারীর লাশ স্থানীয়দের সহযোগিতায় দোলা থেকে উদ্ধার করে সিআইডির মাধ্যমে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির পর ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এখনও আমরা পরিচয় শনাক্ত করতে পারিনি। সেকারণে সিআইডির মাধ্যমে হাতের আঙ্গুলের ছাপসহ প্রয়োজনীয় শারীরিক নমুনা নেয়া হয়েছে। প্রয়োজনে ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে লাশটির পরিচয় আমরা শনাক্ত করতে চাই। তিনি বলেন, লাশটি কীভাবে এখানে এলো, কারা এই ঘটনা ঘটালো সব কিছুই আমরা খতিয়ে দেখা শুরু করেছি।

সুরতহাল অনুযায়ী আমরা ধারণা করছি ওই নারীকে ধর্ষণ করা হয়ে থাকতে পারে। আমরা ময়নাতদন্তসহ প্রয়োজনীয় বস্তুগত রিপোর্ট হাতে পেলে সব কিছু জানাতে পারবো। তবে এটি হত্যাকাণ্ড। লাশ গুম করতেই অনেক দূরের দোলায় বিদ্যুতের খুঁটির সাথে পেঁচিয়ে পুঁতে রাখা হয়েছিল। এই ঘটনায় একাধিক দুর্বৃত্ত জড়িত। কবে এখানে পুঁতে রাখা হয়, কারা এই ঘটনার সাথে জড়িত সেটি জানতে আমরা কাজ শুরু করেছি।

মন্তব্যসমূহ (০)