নওগাঁয় কিশোরীকে অপহরণ করে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য, অভিযুক্ত আটক

নওগাঁয় কিশোরীকে অপহরণ করে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য, অভিযুক্ত আটক

নওগাঁয় কিশোরীকে অপহরণ পূর্বক দীর্ঘ ৩০ দিন আটক রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য- ভিকটিম কিশোরীকে উদ্ধারসহ একজনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৫।

সত্যতা নিশ্চিত করে র‍্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট কাম্প থেকে প্রতিবেদককে জানানো হয়, গত ১১ জুলাই বিকাল ৩ টারদিকে অভিযুক্ত অপহরণকারী-ধর্ষক সালাম হোসেন (৪০), পিতা- মৃত বয়তুল আলী খান, নওগাঁ সদর উপজেলার বর্ষাইল গ্রামে অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জন সহযোগী নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর বাজার এলাকা হতে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় ভিকটিম মোছাঃ আয়েশা খাতুন (১১) (ছদ্মনাম) এক কিশোরীকে জোরপূর্বক উঠিয়ে "অপহরণ করে" নওগাঁ জেলা শহরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সে সময় ভিকটিম "কিশোরী" চিৎকার শুরু করলে মুখে ওড়না পেঁচিয়ে নওগাঁ জেলার অজ্ঞাতনামা বাড়িতে নিয়েগিয়ে সেখানে অভিযুক্ত অপহরণকারী সালাম হোসেন কয়েকদিন ধরে ভিকটিম "কিশোরীকে" ধর্ষণ করেন এবং অন্য অজ্ঞাতনামা কয়েকজন ধর্ষককে ঐ বাড়ীতে নিয়ে এসে অর্থের বিনিময়ে ভিকটিমকে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করেন।

পরবর্তীতে ঐ এলাকার লোকজনের সন্দেহ হওয়ায় অভিযুক্ত ধর্ষক ও অপহরণকারী সালাম হোসেন এই বাসা ছেড়ে অন্য বাসা ভাড়া নেন। সেখানেও ভিকটিমের সাথে একই কাজ করেন। পরবর্তীতে ফের গত ২৫ জুলাই বাসা বদল করে নওগাঁ শহরের ভবানীপুর দক্ষিণ পাড়া এলাকায় জৈনক ব্যাক্তির বাসার নিচতলার একটি ফ্লাট ভাড়া করে ভিকটিমকে নিয়ে উঠেন এবং সেখানেও অভিযুক্ত নিজে ধর্ষন করেন এবং জোরপূর্বক টাকার বিনিময়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করেন ভিকটিম কিশোরীকে। এক পর্যায়ে অভিযুক্ত সালাম হোসেন (৪০) ভিকটিমের বাবার কাছে মেয়েকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথাবলে বিনিময়ে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ চায় এবং ৫০ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে অপহরণকারীকে প্রদান করেন "ভিকটিম" এর বাবা। কিন্তু টাকা নেওয়ার পরও ভিকটিক "কিশোরী" কে ফেরত দেয়নি।

এরপর অভিযুক্ত ধর্ষক ও অপহরণকারী ফের ভিকটিম "কিশোরীর" অভিভাবক এর কাছে আরো ১ লাখ টাকা দাবি করেন। এক পর্যায়ে ভিকটিম এর পরিবার দিশেহারা পড়েন ও তার অভিভাবক র‍্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার কে ঘটনাটি অবগত করলে কোম্পানী কমান্ডার বিষয়টি আমলে নেয় এবং ছায়া তদন্ত শুরু করেন ও নিজস্ব সোর্সের মাধ্যমে তদন্ত শুরু করে তথ্যপ্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে অপহরণকারী ও ভিকটিমের অবস্থান চিহিৃত করেন। অতপর বুধবার ১০ আগষ্ট দিনগত সন্ধা সারে ৭ টায় জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানা ও কোম্পানী উপ-অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আমিনুল ইসলাম এর নেতৃতে নওগাঁ শহরের কাঁঠালতলী মোড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভাড়া বাসা থেকে ভিকটিম "কিশোরীকে" উদ্ধারসহ অভিযুক্ত অপহরনকারী ধর্ষককে গ্রেফতার করেন র‍্যাব।

সংবাদ লেখার সময় এব্যাপারে নওগাঁ জেলার পত্নীতলা থানায় ভিকটিমের বাবা আব্দুল মান্নান (৪৩) বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ (সংশোধনী ২০০৩) মোতাবেক একটি মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে র‍্যাব।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password