হাফ ভাড়া নেবে বিআরটিসি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে

হাফ ভাড়া নেবে বিআরটিসি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে

সরকার সারা দেশে শর্তসাপেক্ষে বিআরটিসির বাসে শিক্ষার্থীদের জন্য ভাড়া ৫০ ভাগ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছ। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। আজ শুক্রবার সরকারি বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান তিনি। শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত আসলো। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীদের জন্য বাসে হাফ পাস বা অর্ধেক ভাড়া চালুর বিষয়ে অংশীজনদের সঙ্গে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) সভা হয়।

বিআরটিএ'র বনানী সদর কার্যালয়ে বসে এ সভা। সভায় সভাপতিত্ব করা সড়ক পরিবহন সচিব নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, বিআরটিসির বাসে শিক্ষার্থীদের জন্য ভাড়া কত কমবে তা শুক্রবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করবেন। মন্ত্রী আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন তাই বিআরটিসি বা বিআরটিএ'র কোনো কর্মকর্তা কত শতাংশ ভাড়া কমবে সেই বিষয়ে কিছু জানাননি।

আজ শুক্রবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্তের কথা জানালেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। তিনি জানান, শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে সারা দেশে বিআরটিসির বাসের জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেতুমন্ত্রী বলেন, আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। ভ্রমণকালে ভ্রমণকালে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ইস্যুকৃত ছবিযুক্ত বৈধ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে এবং প্রয়োজনে প্রদর্শন করতে হবে।

তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের দিন এই সুবিধা পাওয়া যাবে না। শেখ হাসিনা সরকার জনগণের সরকার। জনঘনিষ্ঠ ও যৌক্তিক কোনো দাবিতে প্রধানমন্ত্রী সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে থাকেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা বিআরটিসি বাসে চলাচলের ক্ষেত্রে এ কনসেশন (ছাড়) পাবে।’ সেতুমন্ত্রী বলেন, শিগগিরই এ বিষয়ে বিআরটিসি প্রজ্ঞাপন জারি করবে।

তিনি জানান, বেসরকারি মালিকানাধীন বাস-মিনিবাসে চলাচলে শিক্ষার্থীদের ছাড় দেয়ার বিষয়টি আলোচনার জন্য শনিবার বিআরটিএ’তে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ফেডারেশনের নেতাসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে সভা হবে। এর আগে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক বাস ভাড়া কার্যকরে সরকারকে ৫ দিনের সময় বেঁধে দিয়েছিল আন্দোলনকারীরা। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিআরটিএ প্রধান কার্যালয়ে মালিকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সড়ক সচিব দেখা করতে গেলে এ আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

বিআরটিএ'র চেয়ারম্যানের কার্যালয় সূত্র জানায়, বিআরটিসি বাসে শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বনিম্ন ভাড়া হবে পাঁচ টাকা। সাধারণ যাত্রীদের জন্য সর্বনিম্ন ভাড়া ১০ টাকা। সাধারণ যাত্রীদের জন্য কিলোমিটারে ভাড়া দুই টাকা ১৫ পয়সা। ছাত্রদের জন্য কিলোমিটারে ভাড়া হবে দেড় টাকা। সাধারণ যাত্রীর ভাড়া ৫০ টাকা হলে, বিআরটিসির বাস শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৩৫ টাকা। তবে শেষ পর্যন্ত কতটা কমবে- তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী।

বিআরটিসি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। এর আগে, গতকাল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, 'বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া চালুর বিষয়ে আগামী শনিবারের মধ্যে একটি যৌক্তিক সিদ্ধান্তে আসা সম্ভব হবে। বৃহস্পতিবার রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভায় তিনি বিআরটিসির বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া চালুর বিষয়ে সরকার চিন্তা-ভাবনা করছে।

শুধু সরকারি বাসে নয়, বেসরকারি বাসেও শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া চালুর বিষয়ে সংশ্নিষ্টদের কাছে সহযোগিতা কামনা করবো। আগামী শনিবার বিআরটিএ'র সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তারা বাস মালিকদের সঙ্গে বসে এ ব্যাপারে যৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেবেন বলে আশা রাখি।'

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password