মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ছাত্র আকিব

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ছাত্র আকিব

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মাহাদী জে আকিব। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শনিবার ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত হন তিনি। মাথায় গুরুতর আঘাত নিয়ে মাহাদী এখন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় ১৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজেরই এক শিক্ষার্থী। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মাহাদী জে আকিব। পুরো মাথাই ব্যান্ডেজ মোড়ানো। লেখা “হাড় নেই, চাপ দিবেন না”। ছাত্র সংগঠনের অভ্যন্তরীন কোন্দলের শিকার হয়ে আইসিইউ বেডে শুয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন চিকিৎসক হতে আসা এই শিক্ষার্থী। শনিবার দুপুরের দিকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্র“পের সংঘর্ষ হয়।

এসময় চট্টগ্রাম মেডিকেলের প্রধান ফটকের পাশেই মাহাদীকে নির্মমভাবে প্রহার করে প্রতিপক্ষের কর্মীরা। থেঁতলে যায় মাথা, হাড়ও ভেঙে যায়। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণে পরিস্থিতি জটিল হয়ে ওঠে। দ্রুত তার মাথায় অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা। তবে এখনো আশঙ্কামুক্ত নন তিনি। এ ঘটনায় শনিবার রাতে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় ১৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৫ম বর্ষের শিক্ষার্থী তৌফিকুর রহমান।

এরপর দ্বিতীয় বর্ষের দুই শিক্ষার্থী রক্তিম দে ও এনামুল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ থাকলেও মাঝে মধ্যে সংষর্ষের ঘটনা ঘটে। যা স্বীকার করলেন অধ্যক্ষ সাহেনা আক্তার নিজেও। শনিবার ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password