আল কায়েদার ভিডিওতে অপহৃত সাবেক বাংলাদেশি সেনাকর্মকর্তার অসহায় আকুতি

আল কায়েদার ভিডিওতে অপহৃত সাবেক বাংলাদেশি সেনাকর্মকর্তার অসহায় আকুতি

আট মাসেও উদ্ধার করা যায়নি ইয়েমেনে অপহৃত বাংলাদেশি অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল সুফিউল আনামকে। জাতিসংঘে কর্মরত আনামের এক ভিডিও প্রকাশ করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী আল কায়েদা। ভিডিওতে মুক্তিপণ দিয়ে তাকে বাঁচানোর আকুতি জানিয়েছেন তিনি। এতোদিনে উদ্ধার না হওয়ায় চরম উদ্বেগে দিন কাটছে সুফিউল আনামের পরিবারের।

দ্রুত তাকে উদ্ধার করতে জাতিসংঘ ও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আবেদন জানিয়েছেন স্বজনরা। সাবেক সেনা কর্মকর্তা সুফিউল আনাম বাহিনী থেকে অবসরের পর ২০০৫ সালে যোগ দেন জাতিসংঘে। সবশেষ ইয়েমেনে জাতিসংঘ দফতরের পরিচালক ছিলেন তিনি। এবছর ১১ ফেব্রুয়ারি ইয়েমেনের আবিয়ান প্রদেশ থেকে সুফিউলসহ জাতিসংঘের পাঁচ কর্মী অপহৃত হন। তিনি ছাড়া অন্যরা ইয়েমেনের নাগরিক।

অপহৃতদের ছাড়তে কোটি কোটি ডলার মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। কিন্তু কারা অপরহণ করেছে তা সরাসরি জানতো না কেউ। সবশেষ জঙ্গিগোষ্ঠী আল কায়েদা থেকে পাওয়া একটি ভিডিও প্রকাশ করে সাইট ইন্টেলিজেন্স। তাতে মুক্তিপণ দিয়ে তাকে উদ্ধারের আকুতি জানান সুফিউল আনাম। ইয়েমেনে অপহৃত এই বাংলাদেশিকে ভিডিওতে বলতে দেখা যায়, কতো কতো মাস যে সূর্য দেখি না আমরা, তার কোনো ধারণা নেই। অন্ধকার ঘরে আমরা কয়েকজন আছি। আমি ষাটোর্ধ্ব মানুষ।

নানা ধরনের রোগ আছে আমার, বাঁচবো কিনা তাও জানি না। দ্রুত আমাকে মুক্ত করুন। দয়া করে আমাকে বাঁচান। আমি আমার পরিবারের কাছে ফিরতে চাই। সুফিউল আনামের ভিডিওটি দেখে আরও বেশি ভেঙে পড়েছেন স্বজনরা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও জাতিসংঘের বাংলাদেশ দফতরে দিনের পর দিন ধরনা দিচ্ছেন তারা। তাকে উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং জাতিসংঘ মহাসচিব এন্তোনিও গুতেরেসের কাছেও আবেদন জানিয়েছে পরিবার।

অপহৃত সুফিউল আনামের ভাই কাজী জাভেদ ইসলাম বলেন, জাতিসংঘ তাকে উদ্ধারের জন্য নিজস্ব পদ্ধতিতে দেনদরবার চালিয়ে যাচ্ছে। তবে তাকে উদ্ধার করা যায়নি। জানালেন, সুফিউল আনামের স্ত্রী স্বামীর শোকে কানাডা পাড়ি দিয়েছেন সন্তানদের কাছে। বড়ভাই হিসেবে সুফিউল আনাম ছিলেন তাদের পরিবারের গুরুজন। তাকে ছাড়া বেশ অসহায় দিন কাটাচ্ছে পরিবারটি। অপহৃত সুফিউল আনামের ছেলে সাকিফ আনাম বলেন, সরকার এবং জাতিসংঘ যা করছে তা নিয়ে আমাদের কোনো অভিযোগ নেই। গত ৩ সেপ্টেম্বর যে ভিডিওটি বের হলো, তারপর আমার একটাই অনুরোধ, যা করার দ্রুতই করুন। যত দ্রুত সম্ভব তাকে উদ্ধার করুন।

অপহৃত সুফিউল আনামের বোন কাজী জেসমিন কবীর জানান, পরিবারের ছায়া ছিলেন তিনি। তার অনুপস্থিতি পরিবারের জন্য একটি দুর্যোগ। এ নিয়ে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পাওয়া যায়নি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের। তবে দুদিন আগে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আন্তর্জাতিক গনমাধ্যম বিবিসিকে বলেছিলেন, অপহৃতকে উদ্ধারে এতোদিন শুধু জাতিসংঘের ওপর নির্ভর করেছে বাংলাদেশ। কিন্তু এখন সরকার নিজেই ইয়েমেনের বিভিন্ন মাধ্যম হয়ে চেষ্টা করছে সুফিউল আনামকে উদ্ধারে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password