ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ভূকম্পন অনুভূত

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ভূকম্পন অনুভূত

ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে। ভোর ৪টা ২২ মিনিটে মাঝারি মানের এই ভূমিকম্প হয়। ইউরোপের ভূমধ্যসাগরীয় সিসমোলজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, ভোরে ৫ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে মিয়ানমার। মনিওয়া থেকে প্রায় ১১২ কিলোমিটার উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমে এই ভূমিকম্প আঘাত হানে। উৎপত্তিস্থলে এর গভীরতা ১৪৪ কিলোমিটার। মিয়ানমারে ভূমিকম্পের কারণে বাংলাদেশেও কম্পন অনুভূত হয়।

ভারতের মণিপুর, নাগাল্যান্ড ও দক্ষিণ আসামেও একই কম্পন অনুভূত হয়। ভোররাতে ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থান। এ ভূ-কম্পনের উৎপত্তিস্থল পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারে। যার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। মিয়ানমারের এ ভূমিকম্প বাংলাদেশ ছাড়াও ভারতের মণিপুর, নাগাল্যান্ড, দক্ষিণ আসামেও অনুভূত হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, শুক্রবার ভোর ৪টা ২২ মিনিটে মাঝারি মাত্রার এ ভূমিকম্প আঘাত হানে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের (বিএমডি) অধীন সিসমিক অবজারভেটরি অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টারের ইনচার্জ ইকবাল আহমেদ বলেন, রিখটার স্কেলে ৫ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল রাজধানী থেকে প্রায় ৪৭১ কিলোমিটার পূর্বে মিয়ানমারের মাওলাইক জেলায়। এতে এখনও কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

ইউরোপীয়-ভূমধ্যসাগরীয় ভূকম্পন কেন্দ্রের (ইএমএসসি) তথ্যমতে, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল মিয়ানমারের মনিওয়া শহর থেকে ১১২ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে। এর কেন্দ্রের গভীরতা ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে ১৪০ কিলোমিটার গভীরে। এর আগে গত মে মাসে ৪ দশমিক ৯ মাত্রার এক ভূমিকম্প মিয়ানমারের ফালাম শহরে আঘাত হানে। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বের পার্বত্যাঞ্চলেও এর প্রভাব অনুভূত হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password