বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিলো সিনথিয়া

বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিলো সিনথিয়া

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর পলাশে বাবা হুমায়ূন কবির (৪৮) লাশ বাড়িতে রেখে চোখে অশ্রু নিয়ে এসএসসি পরীক্ষার হলে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে মেয়ে সিনথিয়া কবির। সে উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার জনতা আদর্শ বিদ্যাপীঠের ছাত্রী। জানা যায়, রবিবার ১৪ নভেম্বর ফজরের নামাজের পর সিনথিয়া কবিরের বাবা হুমায়ূন কবির মৃত্যুবরণ করেন।

তিনি ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পলাশ কুটিরপাড়া গ্রামের মৃত মোখলেছ সরদারের ছেলে। বাবাকে হারিয়ে অনেকটা নির্বাক হয়েও সহপাঠী ও কেন্দ্র সচিবের সহযোগিতায় ঘোড়াশাল ডাঃ নজরুল বিন নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজে এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনের পদার্থ পরীক্ষায় অংশ নেয় সিনথিয়া কবির।

তার বাবার মৃত্যুর খবরে পরীক্ষা কেন্দ্রে এক শোকের ছাঁয়া নেমে আসে। চোখের পানি মুছতে মুছতে পরিক্ষার খাতা লিখতে দেখা গেছে সিনথিয়া কবিরকে। নিহতের স্বজনরা জানান, হুমায়ুন কবির হার্ট এটাক করে ভোরে নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর পর বাবাহারা সিনথিয়া এসএসসি পরীক্ষা দিতে ঘোড়াশাল নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে গিয়েছে।

মৃত হুমায়ূন কবিরের জানাজা নামাজ রবিবার দুপুর আড়াইটার দিকে কো-অপারেটিভ স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। পরে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। জানাজায় হুমায়ূন কবিরের আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী, গ্রাম ও আশপাশের এলাকার মানুষ অংশ নেন।

এদিকে যোগাযোগ করা হলে নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজর অধ্যক্ষ ও পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব রিনা নাসরিন জানান, পরীক্ষার্থী সিনথিয়া কবিরের বাবার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা জেনেছি। তার জন্য কোনো বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। সে সবার সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষা দিয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password