বরিশালে দাফনের এক মাস পর কবর থেকে তোলা হলো ব্যবসায়ীর লাশ

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় দাফনের এক মাস পর আদালতের নির্দেশে ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক হাওলাদারের মরদেহ কবর থেকে তোলা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আগৈলঝাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. মাজহারুল ইসলাম জানান, আদালতের নির্দেশে বুধবার দুপুরে ইউএনও মো. আবুল হাশেম, চিকিৎসক জাহিদুল ইসলাম, শেবাচিম হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের ডোম বিজয় ও মামলার তদন্তকারী অফিসারের উপস্থিতিতে মালেক হাওলাদারের লাশ কবর থেকে তোলা হয়। লাশ তোলার পর ওইদিনই ময়নাতদন্তরে জন্য মর্গে পাঠানো হয়। 

ওসি মাজহারুল ইসলাম আরো জানান, উপজেলার ফুল্লশ্রী গ্রামের বাসিন্দা ও উপজেলা সদরের ব্যবসায়ী মালেক হাওলাদার গত ৮ মার্চ রাতে মারা গেলে পরেরদিন সকালে তার লাশ দাফন করে পরিবারের লোকজন।

নিহতের মেয়ে জামাতা একই গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে আসাদুল হক তার শ্বশুর মালেকের মৃত্যু স্বাভাবিক নয়; বরং তাকে তার পরিবারের সদস্যরা হত্যা করেছেন। এমন অভিযোগ এনে গত ১৫ মার্চ বরিশাল আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় মালেক হাওলাদারের তিন ছেলে, তাদের স্ত্রী ও ছেলেসহ সাতজনকে আসামি করা হয়েছে।

আদালতের বিচারক আমিনুল ইসলাম আগৈলঝাড়া থানার ওসিকে অভিযোগটি মামলা হিসেবে গণ্য করে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করলে ১৭ মার্চ থানায় মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়। পরবর্তীতে আদালতের নির্দেশে মালেক হাওলাদারের মৃত্যুর সঠিক কারণ উদ্ঘাটনে দাফনের প্রায় ১ মাস পর বুধবার কবর থেকে তার লাশ তোলা হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন