বিয়ের চাপ দেওয়ায় চুল কাটলো নারীর

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রথমে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন সাজ্জাদ হোসেন সজল (২১) নামের এক যুবক। এ ঘটনায় অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিয়ের জন্য চাপ দেন নারী (২৫)। কিন্তু বিয়ে না করে তাকে মারধর করেন তার প্রেমিক। সেইসঙ্গে ওই নারীর চুলও কেটে দেন ওই যুবক।

এ ঘটনায় সাজ্জাদ হোসেন সজল নামে ওই মুদি দোকানদারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকালে সাভারের ব্যাংক কলোনী এলাকায় অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। আটক সাজ্জাদ হোসেন সজল ওই এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত কয়েক মাস ধরে ব্যাংক কলোনী এলাকার এক নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছিলেন তার প্রতিবেশী মুদি দোকানদার সাজ্জাদ হোসেন সজল। পরে ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে সাজ্জাদ হোসেন সজলকে বিয়ের জন্য চাপ দেন। কিন্তু বিয়ে না করে সাজ্জাদ হোসেন সজল ওই নারীকে মারধর করে বিষয়টি কাউকে জানালে তাকে হত্যা করে গুম করার হুমকি দেন। সেইসঙ্গে ওই নারীর মাথার চুল কেটে দিয়ে তাকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেন সজল।

পরে ওই নারী গতকাল শুক্রবার রাতে সাভার মডেল থানায় উপস্থিত হয়ে ওই মুদি দোকানদারকে প্রধান আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় আজ সকালে পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে সজলকে গ্রেপ্তার করে।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অপূর্ব দাস বলেন, ‘গ্রেপ্তার সাজ্জাদ হোসেন সজলকে আজ দুপুরে আদালতে পাঠানো হবে। ভুক্তভোগী নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আজ সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টফ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।’

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন