বেগম খালেদা জিয়াকে দেয়া স্থায়ী জামিন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন

নড়াইলে মানহানির অভিযোগে করা এক মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে দেয়া স্থায়ী জামিন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন হাইকোর্ট। এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে এ মামলায় আবার জামিন শুনানি হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি এস এম মবিনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন এ জে মোহাম্মদ আলী।

ওই মামলায় ২০১৮ সালের ১৩ আগস্ট হাইকোর্ট খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন ও রুল দেন। পরে জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়।মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্য করায় মানহানির অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর নড়াইল সদর আমলি আদালতে মামলাটি করেন জেলার নড়াগাতী থানার চাপাইল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রায়হান ফারুকী ইমাম।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের একটি সমাবেশে খালেদা জিয়া প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাধীনতা যুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বির্তক আছে বলে মন্তব্য করেন। এছাড়া একই সমাবেশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম উল্লেখ না করে তাকে (বঙ্গবন্ধু) ইঙ্গিত করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘তিনি স্বাধীনতা চাননি। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন, স্বাধীন বাংলাদেশ চাননি।’

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাবন্দি রয়েছেন খালেদা জিয়া।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন