বগুড়ায় ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

বগুড়া জেলায় শিবগঞ্জে সপ্তম শ্রেণীর এক মাদাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক মাদরাসাশিক্ষক মাওলানা আবদুর রহমান মিন্টু (৩২) নামের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে শিবগঞ্জ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

অভিযুক্ত শিক্ষক উপজেলার বিহার ইউনিয়নের পারলক্ষ্মীপুর চাঁনপাড়ার মৃত সোলাইমান আলীর ছেলে। তিনি শিবগঞ্জ পৌর এলাকার বানাইল কলেজ পাড়া মহল্লার হজরত ফাতেমা রা: হাফেজিয়া মহিলা মাদরাসার মুহতামিম (অধ্যক্ষ)।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মাদসাটি আবাসিক। সেখানে আরো ১১-১২ জন ছাত্রী একসাথে থাকতো। তাদের সাথে ওই ছাত্রীও লেখাপড়া করত আবাসিক মাদরাসায় থেকে। হলরুমের পাশেই পরিবারসহ বাস করেন অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুর রহমান মিন্টু। ঘটনার দিন ৩০ মে রাতে ছাত্রীরা রাতের খাওয়া সেরে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত প্রায় আড়াইটার দিকে মাওলানা মিন্টু হলরুমে প্রবেশ করে ওই ছাত্রীর কাছে গিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করেন।

পর দিন মেয়েটি ঘটনার কথা মোবাইল ফোনে তার পরিবারকে জানালে তারা মেয়েটিতে বাড়িতে নিয়ে যায়। বাড়িতে গিয়ে মেয়েটি তার দাদীকে বিস্তারিত জানায়। এ ব্যাপারে মঙ্গলবার বিকেলে মাওলানা আবদুর রহমান মিন্টুকে আসামি করে থানায় মামলা করেন মেয়েটির বাবা। পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে রাতেই করে তাকে গ্রেফতার করে।

শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই শিক্ষক মেয়েটিকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। শুধু তাই নয়, এর আগেও তিনি ওই মাদরাসার আরো তিন-চারজন ছাত্রীকে একই কায়দায় ধর্ষণ করেছে বলে পুলিশকে জানায়। মান-সম্মানের ভয়ে ওইসব পরিবারের লোকজন আইনের আশ্রয় নেয়নি।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password