বিয়ে নয়, নিখিলের সাথে লিভ টুগেদার করেছি: নুসরাত

কয়েকদিন ধরেই ব্যাপকভাবে টলিপাড়ায় উত্তাপ চলছে নুসরাত, নিখিল ও যশকে নিয়ে। টালিপড়ার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাত মা হচ্ছেন এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই ছাড়াচ্ছে নানান রকমের গুঞ্জন! 

এ বিষয়ে এতদিন চুপ ছিলেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। এবার তিনি সাপটা মুখ খুলে জানিয়ে দিলেন মুল ঘটনা। শুধু তাই নয়, তিনি যা বলেছেন, তাতে অবাক হচ্ছেন রিতিমত তার ভক্তরা।

সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত বলেছেন, "বিয়ে নয়, নিখিলের সঙ্গে আমি সহবাস করেছি। ফলে বিবাহ-বিচ্ছেদের প্রশ্নই ওঠে না"। 

নিখিল-নুসরত দম্পতির তুরস্কে বিয়ে হওয়ার প্রসঙ্গ টেনে নুসরাত বলেন, "তুরস্কের বিবাহ আইন অনুসারে এই অনুষ্ঠান অবৈধ। উপরন্তু হিন্দু-মুসলিম বিবাহের ক্ষেত্রে বিশেষ বিবাহ আইন অনুসারে বিয়ে করা উচিত। যা এ ক্ষেত্রে মানা হয়নি। ফলত, এটা বিয়েই নয়"। 

বুধবার (৯ জুন) এক বিবৃতিতে ঠিক এভাবেই নিজের যুক্তি উপস্থাপন করে নিজের মতামত তুলে ধরলেন অভিনেত্রী নুসরাত।

ইতোমধ্যে নুসরাত মা হতে চলেছেন। প্রশ্ন উঠছে তার অনাগত সন্তানের পিতৃপরিচয় কী হবে? গত ৫ দিন ধরে সামাজিকমাধ্যমে এমন বিতর্ক তুঙ্গে উঠে এসেছে।

লেখিকা তসলিমা নাসরিনও এ বিষয়ে নুসরাতের নীরবতা নিয়ে নেট দুনিয়ায় তার মতামত ব্যক্ত করেছেন। তিনি লিখেছিলেন, "এই যদি পরিস্থিতি হয়, তবে নিখিল আর নুসরতের ডিভোর্স হয়ে যাওয়াই কি ভালো নয়? অচল কোনও সম্পর্ক বাদুড়ের মতো ঝুলিয়ে রাখার কোনও মানে হয় না। এতে দু’পক্ষেরই অস্বস্তি"।

এদিকে ভারতের আনন্দ বাজারের তথ্যমতে, নিখিল জানিয়েছিলেন, নুসরতের বিরুদ্ধে দেওয়ানি মামলা দায়ের করেছেন তিনি।

তার ভাষায়, "যে দিন জানলাম, নুসরাত আমার সঙ্গে থাকতে চায় না, অন্য কারও সঙ্গে থাকতে চায়, সে দিনই দেওয়ানি মামলা দায়ের করেছি। নুসরাতের মা হওয়ার পরে এই সিদ্ধান্ত নিইনি আমি"। 

তাছাড়া আগামী জুলাই মাসে আদালতে এই মামলার শুনানি হবে বলেও নিখিল উল্লেখ করেন।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password