নওগাঁ বদলগাছীতে পারিবারিক দ্বন্দ্বে মা-মেয়ের আত্মহত্যা

নওগাঁর বদলগাছীতে পারিবারিক জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মা মেয়ের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

থানা পুলিশ ও গ্রামবাসীর ভাষ্য অনুযায়ী জানা যায়, উপজেলার আধাইপুর ইউপি’র দেউলিয়া গ্রামের লবিন উদ্দীন তার সবটুকু সম্পত্তি তার ছেলে আব্দুল লতিফ ও মেয়ে লতা পারভীনের নামে লিখে দেন। লতা পারভীন তার ছেলের চাকরি বাবদ জমি বিক্রয় করতে চাইলে মায়ের সাথে বিরোধ সৃষ্টি হয়। মায়ের দাবি বাবা-মা বেঁচে থাকতে জমি বিক্রয় করা যাবে না। বিষয়টি নিয়ে লতা ও তার স্বামীর মধ্যেও বিরোধ শুরু হয়।

এক পর্যায়ে অভিমান করে সোমবার সন্ধ্যার পর লেপটিক (ক্লোনাজিপাম) ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে রাত ৯ টার পর তাকে বদলগাছী হাসপাতালে নেয়া হলে লতাকে নওগাঁ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

লতা পারভীন (৪০) দেউলিয়া গ্রামের সুলতানের স্ত্রী। মা ও মেয়ের বাড়ি পাশাপাশি। রাত ২ টার দিকে মেয়ে লতার লাশ বাড়িতে পৌঁছিলে তার মা হাছনা বানু (৬০) ছুটে এসে মেয়ের মৃত লাশ দেখে সেও বাড়িতে ছুটে গিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। রাতেই পারিবারিকভাবে দুটি লাশ দাফনের চেষ্টা করা হয়। গ্রামবাসী দু’একজনের বাঁধার মুখে লাশ দুটি দাফন করতে পারেনি।

খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন। মহাদেবপুর-বদলগাছী সার্কেল এ এস পি টি, এম মাইনুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতিকুল ইসলাম জানান, পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে মেয়ে বিষের ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করে। মেয়ের লাশ দেখে মা আত্মহত্যা করে। উভয়ের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password