হেফাজতের নতুন কমিটি গঠন, বাদ পড়লেন মামুনুল হক!!

রবিউল হাসান, বিশেষ প্রতিনিধি, চট্টগ্রামঃ বহুল আলোচিত দেশের বৃহত্তম অরাজনৈতিক ইসলামী আন্দোলন হেফাজতে ইসলাম,বাংলাদেশ এর নতুন কমিটি ঘোষণা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাজধানীর খিলগাঁও জামে মসজিদে বেলা ১১টার সময়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ৩৩ সদস্যের এ কমিটি ঘোষণা করা হয়।নতুন এ কমিটির আমীর হয়েছেন, আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী এবং মহাসচিব হয়েছেন মাওলানা নুরুল ইসলাম জিহাদী।

এ সময় ৯ সদস্যবিশিষ্ট কেন্দ্রীয় একটি খাস কমিটিও ঘোষণা করা হয়। এই খাস কমিটি “মজলিসে শূরা” হিসেবে বিবেচিত হবে। এ ছাড়া হেফাজতের মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে বিবেচিত হবে। নতুন এ কমিটিতে শফিপন্থী অনেকে স্থান পেলেও বাদ পড়েছেন আলোচিত হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হক,সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক, মুফতি হারুন ইজহার সহ বিতর্কে জড়িয়ে পড়া বেশ কয়েকজন হেফাজত নেতা। মাওলানা আহমদ শফি (রঃ) এর বড় পুত্র ইউসুফ মাদানিকে করা হয়েছে সহকারী মহাসচিব।

গত ২৫ শে এপ্রিল মোদী বিরোধী আন্দোলনে গ্রেফতারকালীন সময়ে হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত করেন হেফাজত আমীর আল্লামা বাবুনগরী। এবং আহবায়ক হন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সদস্য সচিব হন নুরুল ইসলাম জিহাদী, প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে ছিলেন সংগঠনটির সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী। নব গঠিত এ কমিটি নিয়ে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন।হেফাজতের অভ্যন্তরীন সুত্রে বলছে নতুন কমিটি সরকারের ইশারায় হয়েছে,স্থান পেয়েছে আওয়ামী পন্থী হেফাজত নেতারাও।

নতুন এ কমিটি নিয়ে আল্লামা শফি পুত্র মাওলানা ইউসুফ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান নতুন এ কমিটি তিনি মানেন না। মামুনুল হক, আজিজুল হক,হারুন ইজহার সহ বেশ কয়েকজন হেফাজতের নতুন কমিটিতে স্থান না পাওয়ায় সাংবাদিকবৃন্দ নুরুল ইসলাম জিহাদীকে তাদের অপরাধী ভেবে বাদ দেয়া হয়েছে কি না প্রশ্নের উত্তরে বলেন,আমরা অপরাধী বলার সুযোগ নাই,একমাত্র অপরাধী বলতে পারে পারে আদালত।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password