ঢাবি শিক্ষার্থী তুষ্টির পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে

সোমবার ৭ জুন সকাল সাড়ে ৯টায় ইসরাত জাহান তুষ্টির জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে হাজারো মানুষ অংশ নেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান তুষ্টির জানাজা নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার সুখারী ইউনিয়নের নীলকণ্ঠপুর গ্রামের তহসিলের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানাজা শেষে নীলকণ্ঠপুর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শেষবারের মতো তুষ্টিকে এক নজর দেখতে এবং জানাজায় অংশ নিতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন হাজারো মানুষ। মেয়ে সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন বাবা আলতাফ উদ্দিন। তুষ্টির চাচা প্রভাষক ইমাম হোসেন মেহেদী বলেন, আমি যা করতে পারিনি তুষ্টির মাধ্যমে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা আর পূরণ হলো না। চেয়ারম্যান কফিল উদ্দিন বলেন, তুষ্টির এই অকাল মৃত্যুতে আমরা একটি আলোকিত নক্ষত্রকে হারালাম।

বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ইসরাত জাহান তুষ্টি অন্য কয়েকজন সহপাঠীর সঙ্গে ঢাকার আজিমপুরে সরকারি কোয়ার্টারের একটি বাসা ভাড়া নিয়ে পড়াশোনা করছিলেন। শনিবার মধ্যরাতে তার এক রুমমেট তুষ্টিকে বাথরুমে পড়ে থাকতে দেখে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করেন। পরদিন রোববার সকালে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বাথরুম থেকে তুষ্টির মরদেহ উদ্ধার করে। পরে মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password