ডিজেল,কেরোসিন,এলপিজি ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণসমাবেশ

ডিজেল,কেরোসিন,এলপিজি ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণসমাবেশ

গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের উদ্যোগে আজ ৯ নভেম্বর ২০২১ মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে “ডিজেল—কেরোসিন—এলপিজি ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণসমাবেশ” অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সমন্বয়ক ও পিডিপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশীদ খান বলেন, “জ্বালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্যবৃদ্ধির কারণে সারাদেশের কৃষক সমাজ মহাবিপদে পড়বে।

বছর ডিজেলের দাম বৃদ্ধি হওয়ার কারণে কৃষি পণ্য উৎপাদনে কৃষকরা অনীহা প্রকাশ করলে কৃষি পণ্য উৎপাদন ব্যাহত হবে।” বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম—এল) এর সাধারণ সম্পাদক কমরেড হারুন চৌধুরী বলেন, “এক তরফাভাবে জ্বালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধি প্রশাসনের কর্মকর্তা—কর্মচারীদের জনগণের বিরুদ্ধে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। এই কারণে ভবিষ্যতে যদি প্রশাসন ও জনতার মধ্যে গণবিদ্রোহ ঘটে তাহলে সরকার দায়ী হবে।”

সোস্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, “চলমান সরকার ও বিএনপি ষড়যন্ত্রমূলক ইতিহাস চর্চা নিয়ে ব্যস্ত আছে। জনগণের জীবন—যাপন কিভাবে পরিচালিত হবে তা ভাবছে না। এ থেকেই বুঝা যায় জনগণের বিপদ আসন্ন হওয়া সত্ত্বেও তারা ক্ষমতার রাজনীতিকে কেন্দ্র করে ঝগড়া—ফ্যাসাদে নিমজ্জিত আছে।

এখনই তাদের জনতার দিকে নজর দিয়ে গণমানুষের পক্ষে কর্মসূচি গ্রহণ করা উচিত।” সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সামছুল আলম বলেন, “সরকার দলীয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন সমর্থিত মালিক সমিতি জনগণের বিরুদ্ধে নিন্দনীয় খেলায় মেতে উঠেছে। রাজপথে আন্দোলন করার পরিবর্তে জনগণকে জিম্মি করে দাবী আদায়ের ষড়যন্ত্র করছে।

সরকারের উচিত এই সব ভুইফোড় মন্ত্রী, এমপি ও সংগঠনের বড় বড় নেতাদের সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র জনগণকে জিম্মি করার দায়ে চিহ্নিত দৃষ্টান্তমূলক বিচারের ব্যবস্থা করা।” সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password