পশ্চিমা বিশ্বের আগ্রহ হারানোর আশঙ্কা করছে ইউক্রেন

পশ্চিমা বিশ্বের আগ্রহ হারানোর আশঙ্কা করছে ইউক্রেন

ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ অভিযানের সাড়ে তিনমাস পেরিয়ে গেছে। এতো দিন ধরে রুশ আগ্রাসন চলায় ‘যুদ্ধের ক্লান্তি’র কারণে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেনকে সাহায্য করার সংকল্প থেকে পশ্চিমা বিশ্বকে পিছিয়ে দিতে পারে বলে কিয়েভের কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি ইতোমধ্যেই আপস মেনে নেওয়ার ব্যাপারে দেওয়া পশ্চিমা পরামর্শে ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

শান্তির জন্য ইউক্রেন নিজের সিদ্ধান্তই নেবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, ক্লান্তি বাড়ছে। মানুষ কিছু ফলাফল আশা করছে (যা তাদের জন্য লাভজনক), আর আমরাও আমাদেন জন্য একটা ফলাফল চাইছি। এদিকে, শান্তি চুক্তির জন্য ইউক্রেন রাশিয়ার কাছে তাদের কিছু অঞ্চল ছেড়ে দিক, এমন প্রস্তাবের প্রতিক্রিয়ায় জেলেনস্কি এসব বলেন।

যুদ্ধের পেছনে ইউক্রেনকে প্রতিমাসে ৫ বিলিয়ন ডলার খরচ করতে হচ্ছে বলে বার্তা সংস্থা এপিকে পেন্টা থিংক ট্যাংকের বিশেষজ্ঞ ভলোদমির ফেসেঙ্কো। ফেসেঙ্কোর মতে, এই বিষয়টি পশ্চিমা দেশগুলোর ওপর ইউক্রেনকে নির্ভরশীল করে তুলছে। তিনি আরও বলেন, এটি নিশ্চিত যে, রাশিয়া পশ্চিমাদের সরিয়ে দিতে বদ্ধপরিকর। এখন তারা তাদের কৌশল ঠিক করছে যে পশ্চিমারা একটা সময় ক্লান্ত হয়ে যাবে এবং ধীরে ধীরে সামরিক দিক থেকে সরে আসবে এবং মানানসই এমন কিছুর দিকে ঝুঁকবে।

মন্তব্যসমূহ (০)