মাত্র ১৮ বলে বাংলাদেশকে হাড়ালো শ্রীলঙ্কা

মাত্র ১৮ বলে বাংলাদেশকে হাড়ালো শ্রীলঙ্কা

দ্বিতীয় টেস্টটা একেবারেই ভাল যাচ্ছিলনা বাংলাদেশ দলের। দুই ইনিংস খেলে বাংলাদেশ দল করে ৩৬৫ ও ১৬৯ রান। জবাবে শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংসে করে ৫০৬ রান সেই পরিপ্রেক্ষিতে শ্রীলঙ্কা দলের লক্ষ্যটা ছিল মাত্র ২৯ রানের। তার জন্য আর কতই বা সময় নেবে লঙ্কান ব্যাটাররা। মাত্র ১৮ বল ও ১০ উইকেট হাতে রেখেই ম্যাচ নিল শ্রীলঙ্কা। পাশাপাশি দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি ১-০ তে জিতে নিল করুনারত্নের দল।

ক্রিকেট প্রেমিরা দ্বিতীয় ইনিংসের শুরু থেকেই অবশ্য এমনটা আঁচ পাওয়া যাচ্ছিল, যে অল্প রানেই গুটিয়ে যাবে বাংলাদেশ। কারণ মাত্র ২৩ রানে ৪ ব্যাটরকে হারিয়ে মহাবিপদে পড়েছিল বাংলাদেশ। তবে লিটন ও সাকিব আশা দেখাচ্ছিল।

তাদের ১০৩ রানের জুটি আশা দেখাচ্ছিল যে ড্র করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তবে মধ্যাহ্ন বিরতির পর একে একে সাকিব, মোসাদ্দেক, তাইজুল ও খালেদকে হারিয়ে ১৬৯ রানেই অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ।

আর তাতে শ্রীলঙ্কার লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র ২৯ রানে। যা তাদের তুলে নিতে বেগ পেতে হয়নি লঙ্কান ব্যাটারদের। দুই ওপেনার ওশাদা ফার্নান্দো ও দিমুথ করুনারত্নে এই লক্ষ্য তুলে নিয়েছে মাত্র ১৮ বলেই।

পঞ্চম দিনের শুরুতে মুশফিককে নিয়ে ভালো শুরুর আশ্বাস দিচ্ছিল লিটন। তবে প্রথম ইনিংসে ১৭৫ রানে অপরাজিত থাকা মুশফিক দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ২৩ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। এরপরই হারের শঙ্কা জাগে। কিন্তু মধ্যাহ্ন বিরতির আগ পর্যন্ত দারুণ ব্যাটিং করে যান সাকিব ও লিটন দুইজনই তুলে নেন ফিফটি। সাথে লিটন ছুঁয়ে ফেলেন টেস্টে দুই হাজার রানের মাইলফলক।

কিন্তু হঠাৎ টাইগার ব্যাটিংয়ে ছন্দ পতন। প্রথমে লিটন ফার্নান্দোর কাছে ক্যাচ তুলে নিয়ে পতনের শুরু করেন। তখন দলের রান ছিল ১৫৬। আর ফার্নান্দো ভাঙ্গেন সাকিব-লিটনের ১০৩ রানের জুটি।

এরপর সাকিব ৫৮ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেলে বাংলাদেশের হারটা সময়ের ব্যাপার হয়ে যায়। ১৫৬ রানে যেখানে ছিল ৫ উইকেট, এরপর মাত্র ১৩ রান তুলতেই বাকি ৫ উইকেট হারিয়ে বসে টাইগাররা। দ্বিতীয় ইনিংসেও নিজেকে প্রমাণ করতে পারেননি মোসাদ্দেক হোসেন। প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন মাত্র ৯ রানে।

এরপর তাইজুল, খালেদরাও বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের ইনিংস থামে ১৬৯ রানে। এতে শ্রীলঙ্কার লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র ২৯ রান। লঙ্কানদের হয়ে ৫১ রান খরচায় ৬ উইকেট নিয়েছেন অসিথা ফার্নান্দো। দুই উইকেট পেয়েছেন রাজিথা। আর দ্বিতীয় টেস্টে লঙ্কানদের হয়ে প্রথম স্পিনার হিসেবে উইকেট পেলেন রমেশ মেন্ডিস।

সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ১৮ বল খরচ করেই ম্যাচের সাথে সিরিজও জিতে নেয় শ্রীলঙ্কা। ওশাদা ফার্নান্দো অপরাজিত থাকেন ৯ বলে ২১ রান। আর অধিনায়ক করুনারত্নে অপরাজিত থাকেন ৭ রানে। ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে ১০ উইকেট পেয়েছেন অসিথা ফার্নান্দো। দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটের আগে প্রথম ইনিংসে ফার্নান্দো তুলে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। ম্যাচ সেরাও হয়েছেন তিনি। 

মন্তব্যসমূহ (০)