অপহরণ নাটক সাজিয়ে ধরা পড়লেন ইমাম

অপহরণ নাটক সাজিয়ে ধরা পড়লেন ইমাম

রাজশাহীতে অপহরণের নাটক সাজিয়ে পুলিশের কাছে ধরা পড়েছেন মিজানুর রহমান (২৬) নামে এক ইমাম। মিজানুর জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার কাজিহাটা ধরমপুর গ্রামের বাসিন্দা। বাবার নাম এমারত আলী। তিনি গোদাগাড়ীর একটি মসজিদে জুমার নামাজ পড়াতেন।

এ ছাড়া মিজানুর মহানগরীর টুলটুলি পাড়া এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল মঙ্গলবার ঢাকার গাবতলী থেকে মিজানুরকে ধরে আনে। এরপর মঙ্গলবার সকালে মহানগর ডিবি পুলিশের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর ডিবি পুলিশের উপকমিশনার আরেফিন জুয়েল জানান, মিজানুর ২০১৪ সাল থেকে ‘ফরেক্স ফ্যাক্টরি’ নামের একটি বিদেশি প্রতিষ্ঠানে অনলাইনের মাধ্যমে বিনিয়োগ করেন। প্রথমদিকে ভালো লাভ করলেও ধীরে ধীরে তার লোকসান হতে থাকে।

তিনি বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজনের কাছ থেকে ধার করে ৩১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন। একপর্যায়ে সব টাকাই তিনি হারিয়ে ফেলেন। এই ঋণ পরিশোধের জন্য মিজানুর অপহরণ নাটক সাজান। গত ১৩ ডিসেম্বর তিনি আত্মগোপন করেন। তারপর বাড়িতে ফোন করে জানান, তাকে অপহরণ করা হয়েছে।

২০ লাখ টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলা হবে। পরবর্তীতে ১০ লাখ এবং সবশেষ ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। তবে টাকা না দিয়ে মিজানুরের মা মনিরা বেগম মহানগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এই জিডির পরিপ্রেক্ষিতেই ডিবি পুলিশ মিজানুরের অবস্থান শনাক্ত করতে কাজ শুরু করে।

আরেফিন জুয়েল জানান, মিজানুর হরদম নিজের অবস্থান পরিবর্তন করছিলেন। অবশেষে তাকে ধরা সম্ভব হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে মিজানুর সাংবাদিকদের জানান, ঋণের টাকা পরিশোধের জন্য তিনি নিজেই অপহরণের নাটক সাজিয়েছিলেন। মিজানুর বলেন, আমার একটা ভুলের কারণে প্রায় ৩০ লাখ টাকা ঋণ হয়ে গেছে। এ জন্য আমাকে এই কৌশল নিতে হয়েছিল।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password