ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতিকে সিপিবি নেতাদের মারধর

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ফয়েজ উল্লাহর ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) দুই নেতা জলি তালুকদার এবং হজরত আলীর বিরুদ্ধে। আজ রবিবার মারধরের শিকার ফয়েজ উল্লাহর ছবি এখন সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল। তার দেহে আঘাতের চিহ্নও স্পষ্ট দেখা গেছে। বিস্তারিত জানতে ছাত্র ইউনিয়নের অফিসিয়াল নাম্বারে ফোন দিলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এর আগে আজ রবিবারই পল্টনে অনুষ্ঠিত ছাত্র ইউনিয়নের এক কর্মসূচিতে সংগঠনটির কবি নজরুল সরকারি কলেজ শাখার দপ্তর সম্পাদক জোবায়ের সজলকে মারধর করা হয়। ওই ঘটনায় সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা ও বর্তমান সিপিবি শান্তিনগর শাখার নেতা মঞ্জুর মঈনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। ফেসবুকে লেখালেখিকে কেন্দ্র করে সজলকে সিপিবি কার্যালয় মুক্তি ভবন থেকে টেনে হিঁচড়ে বের করে মারধর করেন মঞ্জুর মঈন। রবিবার সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন। 

অনেকদিন ধরেই ছাত্র ইউনিয়নের বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটির বিরোধিতা করে আসছে একটি অংশ। এই অংশটিকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ আছে সিপিবির কিছু নেতার বিরুদ্ধে। সিপিবির কিছু নেতাই দল এবং ছাত্র ইউনিয়নের মাঝে আভ্যন্তরীণ কোন্দলের সৃষ্টি করে বলে অনেকর অভিযোগ। এদিকে ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছাত্র ইউনিয়নে এমন ঘটনা ঘটায় স্তম্ভিত সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীরা। সাবেক সভাপতি 'স্লোগানকন্যা' লাকী আক্তার ফেসবুকে এই হামলার বিচার দাবি করেছেন তার রাজনৈতিক দল কমিউনিস্ট পার্টির কাছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন