গলাচিপা খাবারের প্রতি লোভ দেখিয়ে প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণ

বরিশাল প্রতিনিধিঃ- পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার গজালিয়া ইউনিয়নের ব্রিজ বাজারে খাবারের লোভ দেখিয়ে এক প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই বাজারের চা দোকানদার জালাল গাজীর (৫৫) বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনে ঘটনার ৬ দিন পরে রোববার রাতে গলাচিপা থানায় ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা মামলা দায়ের করেছেন। 

পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। তবে পুলিশ ধর্ষককে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি। মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, চায়ের দোকানদার মো. জালাল গাজী ও শিশুটি সম্পর্কে দাদা-নাতি। শিশুটির বয়স ১২ বছর। সে  শিশুটি মাঝে মধ্যেই জালাল গাজীর দোকানে যেত। জালাল গাজীও শিশুটিকে বিভিন্ন ধরনের খাবার দিত। 

ঘটনার দিন ১২ এপ্রিল দুপুরের দিকে দোকানে গেলে শিশুটিকে খাবারের প্রলোভন দিয়ে জালাল গাজী পিছনে নিয়ে যায় এবং মুখ চেপে ধর্ষণ করে। এসময় শিশুটির কান্নাকাটির শব্দ পেয়ে পার্শ্ববর্তী রেজাউল গাজী ঘটনাস্থলে ছুটে গেলে জালাল গাজী দৌড়ে পালায়। পরে শিশুটি বাড়ি এসে তার মায়ের কাছে সব খুলে বলে। অভিযোগ উঠেছে, একটি প্রভাবশালী মহল ঘটনা ধামাচাপা দিতে চেষ্টা করে। প্রভাবশালীরা শিশুটির পরিবারের সদস্যদের ভয়ভীতি দেখায়। 

এ বিষয়ে গলাচিপা থানার ওসি এমআর শওকত আনোয়ার জানান, এ ঘটনায় রোববার রাতে শিশুটির বাবা জালাল গাজীর নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। শিশুটিকে পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী পাঠানো হয়েছে। আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন