স্পেনে বিষাক্ত বর্জ্যের মধ্যে লুকিয়ে ছিলেন অভিবাসী

স্পেনের মেলিলা বন্দরে বিষাক্ত বর্জ্যের মধ্যে একটি বস্তায় লুকিয়ে ছিলেন এক অভিবাসী। গত শুক্রবার ওই ব্যক্তি প্রথম চোখে পড়েন এক বন্দর কর্মকর্তার। তিনি ধরেই নেন, বস্তার ভেতর লাশ। সঙ্গে সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে আনা হয়। তবে বস্তা থেকে বের করার পর তাঁর জ্ঞান ফিরে আসে।

মঙ্গলবার দেশটির পুলিশ এএফপিকে এ তথ্য জানায়। খবরে বলা হয়, চিমনির ছাইভর্তি মুখবন্ধ প্লাস্টিকের ব্যাগের মধ্যে এক ব্যক্তিকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পান বন্দরের এক কর্মকর্তা। চিমনির ওই ছাই মূলত কয়লা পোড়ানোর পর যেসব উপজাত অবশিষ্ট থাকে সেগুলো। ইউরোপের বর্জ্য আইন অনুযায়ী, এই বর্জ্য বিষাক্ত।

ওই কর্মকর্তা প্রথমে মানুষের পায়ের মতো কোনো কিছুর আকৃতি দেখতে পান। এরপর তিনি দ্রুত অ্যাম্বুলেন্স ডাকেন। প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন, বস্তার ভেতর লাশ। তবে ওই ব্যক্তিকে বস্তা থেকে বের করার পর তাঁর জ্ঞান ফিরে আসে এবং তিনি রক্ষা পান।

গত শুক্রবার নৌকায় করে অবৈধভাবে স্পেনের মূল ভূখণ্ডের দিকে পাড়ি দেওয়ার সময় ওই বন্দর থেকে ৪১ অভিবাসী পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। তাঁদের কেউ কেউ লরি বা অন্য যানবাহনে লুকিয়ে ছিলেন। পুলিশ বলছে, অনেকেই কনটেইনারের মধ্যে লুকিয়ে ছিলেন। এসব কনটেইনারে ভাঙা কাচ ভরা ছিল। তাই অনেক অভিবাসীর শরীরের বিভিন্ন অংশ কেটে গেছে।

গত বছর সমুদ্র ও স্থলপথে ৪১ হাজারের বেশি অবৈধ অভিবাসী স্পেনে ঢুকেছেন, যা ২০১৯ সালের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি। বিপদজনক সমুদ্রপথ পাড়ি দিয়ে তাঁদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি ক্যানারি দ্বীপে নেমেছেন।

অবৈধ অভিবাসী অনুপ্রবেশ ঠেকাতে ভূমধ্যসাগরে তদারকি বাড়ানোর পর ইউরোপের দেশগুলোতে যেতে এখন বিকল্প পথ ব্যবহার শুরু হয়েছে। গত বছর ১ হাজার ৫০০ অভিবাসী মরক্কো উপকূল দিয়ে মেলিলা পৌঁছেছেন।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন