জ্যান্ত সাপ চিবিয়ে টুকরো করল মদ্যপ যুবক

কতই কাণ্ড ঘটে এই দুনিয়ায়। স্বাভাবিক সময়ে বিভিন্ন ঘটনা বিস্মিত করে আমাদের। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে যে দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল, তা রীতিমতো চমকে দেওয়ার মতো। মদ্যপ অবস্থায় মান আর হুঁশ খুইয়ে আস্ত একটা সাপের গায়ে কামড় বসালেন এক ব্যক্তি! এতেই যদি অবাক হয়ে থাকেন তবে কামড় বসানোর কারণ শুনলে অবিশ্বাস্য মনে হবে।মোটরবাইক চালিয়ে যাওয়ার সময় আচমকাই একটা সাপ চলে আসে মদ্যপের বাইকের সামনে। আর তাতেই মেজাজ হারান তিনি। তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে সাপকে বলেন, “আমার রাস্তা আটকাস? তোর এত সাহস!” এরপরই সেই সাপকে উচিত শিক্ষা দিতে রাস্তা থেকে তুলে সোজা কামড় বসান। দাঁত দিয়ে ছিঁড়ে টুকরো টুকরো করে ফেলে সাপটিকে। এমন নৃশংস দৃশ্যের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কর্ণাটকের কোলারের মদ্যপ ব্যক্তির কাণ্ডকারখানা দেখে চক্ষু চড়কগাছ নেটিজেনদের। জানা গিয়েছে ওই ব্যক্তির নাম কুমার। মদ কিনে বাইক চালিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। তখনই তাঁর বাইকের নিচে চলে আসে সাপটি। রাগের মাথায় গালিগালাজ দিয়ে তাকে ঘাড়ে তুলে নিয়ে খানিক দূর পর্যন্ত বাইক চালিয়ে এগিয়ে যান তিনি। তারপর বাইক দাঁড় করিয়ে সাপটিকে দাঁত দিয়ে কেটে টুকরো টুকরো করেন। আশপাশের লোকজন যে দৃশ্য দেখে রীতিমতো স্তম্ভিত। তাঁদের মধ্যেই কেউ কেউ গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছনোর আগে মৃত্যু হয় সরীসৃপটির। সাপটি বিষাক্ত কি না, তাও ভেবে দেখার মতো অবস্থায় ছিলেন না বছর আটত্রিশের কুমার। বরং বলেন, “এই সাপটা এর আগেও আমায় বিরক্ত করেছে। এদিন সকালে গাড়ির নিচে চলে আসায় ভীষণ রাগ হয়ে গিয়েছিল।” জানলে অবাক হবেন, ওই ঘটনার পর চিকিৎসকের কাছেও যাননি কুমার। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই বলছেন, কিচ্ছু হবে না তাঁর।দীর্ঘ ৪৬ দিন বন্ধ থাকার পর লকডাউনের তৃতীয় দফার প্রথম দিন অর্থাৎ গত সোমবার দেশের প্রায় সব রাজ্যেই খোলে মদের দোকান। করোনা আতঙ্ক উপেক্ষা করেই দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে মদ কিনতে ভিড় জমান সাধারণ মানুষ। আর তার পরের দিন থেকেই মদ্যপদের নানা কাণ্ডকারখানার খবর উঠে আসছে শিরোনামে। তবে এই মদ্যপের ভিডিও দেখে তীব্র নিন্দা করেছেন নেটিজেনরা।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন