মমিনুল-মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে প্রথম জয় পেল গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের কাছে হেরে লিগ শুরু করা গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে আজও পরাজয় চোখ রাঙাচ্ছিল। শেখ জামালের দেয়া ১৫২ রানের টার্গটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই দুই উইকেট হারিয়ে বসে তারা। জাতীয় দলের ওপেনার সৌম্য সরকার আজও ব্যাট হাতে রান করতে পারেনি। সাজঘরে ফিরছেন মাত্র ১৩ রানে। আরেক ওপেনার শাহাদাত হোসেন দিপুও ১৩ রান করে বিদায় নিলে পরাজয়ের শঙ্কায় পরে গাজী গ্রুপ ক্রিকের্টাস। তবে সেখান থেকে দলকে দারুণ এক জয় এনে দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও টেস্ট অধিনায়ক মমিনুল হক।

মমিনুল-মাহমুদউল্লাহর ৯৭ রানে জুটিতেই লিগে গাজী গ্রুপ তাদের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে। ফিফটি করে টেস্ট ব্যাটসম্যানের তকমা গায়ে লাগানো মুমিনুল (৩৬ বলে ৫৪) আউট হয়ে গেলেও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৫১ বলে ৪ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ৬২ রান করে অপরাজিত থেকেই মাঠ ছেড়েছেন। ৭ বল ও ৭ উইকেট বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌছে যায় গাজী গ্রুপ। গাজী গ্রুপ ক্রিকের্টাসকে আটকানোর জন্য চেষ্টার কোন কমতি রাখেননি শেখ জামালের অধিনায়ক সোহান। ৮ জন বোলার ব্যাবহার করেছেন তিনি। স্পিনার এনামুল ও শাকিল ছাড়া অধিনায়কের মুখে কেউ হাসি ফোটাতে পারেনি। এনামুল দুটি ও শাকিল এক উইকেট নেন।

এর আগে মিরপুর শের-ই-বাংলায় নির্ধারীত ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেটে ১৫১ রানের লড়াকু পুঁজি পায় শেখ জামাল। গত ম্যাচের মতো এ ম্যাচেও শেখ জামালকে উড়ন্ত সুচনা এনে দিয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল ও সৈকত আলী। ৩৫ বলে ৪ ছক্কায় ৪১ রানের ইনিংস খেলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম সুপার স্টার আশরাফুল। অন্য ওপেনার সৈকত আলী করেছেন ৩০ বলে ৩ চার আর ২ ছক্কায় ৩৩ রান। এছাড়া শেখ জামালের হয়ে নাসির হোসেন ২০, জিয়াউর রহমান ২১ এবং অধিনায়ক সোহান ১১ রান করেন। গাজী গ্রুপের পক্ষে ২৩ রাএন ২ উইকেট শিকার করেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তরুণ পেসার মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধও দুটি উইকেট শিকার করেন।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password