প্রেসক্লাবের সভাপতির ক্ষমতার অপব্যবহারের প্রতিবাদে গণমাধ্যমকর্মীদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

প্রেসক্লাবের সভাপতির ক্ষমতার অপব্যবহারের প্রতিবাদে গণমাধ্যমকর্মীদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ  ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি কবিরুল ইসলাম সিদ্দিকী ক্ষমতার অপব্যবহার করে ১০ অসংবাদিককে প্রেসক্লাবের সদস্য করার গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রতিবাদে এবং বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। ফরিদপুরের গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনে মুজিব সড়কে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এ সময় দাবির সমর্থনে বক্তব্য দেন ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল ইসলাম পিকুল, দৈনিক ইনকিলাবের ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি আনোয়ার জাহিদ,

মোহনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি আশিষ পোদ্দার, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি কামরুজ্জামান, দৈনিক গণ সংহতি পত্রিকার গোলাম নাসির প্রমুখ বক্তারা বলেন, প্রেসক্লাবের সভাপতি কবিরুল ইসলাম প্রেসক্লাবে আত্মীয়করণের অংশ হিসেবে ১০ অসাংবাদিককে প্রেসক্লাবের সদস্যপদ দিয়ে এক অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে।

পাশাপাশি গঠনতন্ত্র লংঘন করে নির্বাচন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের নামে প্রহসনের পায়তারা করছেন। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে গণমাধ্যম কর্মীরা জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের নিকট এবং পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গিয়ে পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামানের হাতে পৃথক দুটি স্মারকলিপি তুলে দেয় গণমাধ্যম কর্মীরা।

ওই স্মারকলিপিতে বলা হয়, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের গঠণতন্ত্র পরিপন্থি ভাবে স্বেচ্ছাচারিতা ও স্বজনপ্রীতি করে ১০ জন বিতর্কিত সদস্য নেওয়া হয়েছে। এ বিতর্কিত সদস্যার বিরুদ্ধে প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। অতীতে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের ক্রান্তিলগ্নে ক্লাবের অচল অবস্থা নিরসনে প্রধান পৃষ্ঠপোষক তৎকালিন জেলা প্রশাসকগণ ব্যবস্থা নিয়ে ক্লাব পরিচালনা ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রেখে প্রসংশিত হয়েছেন উল্লেখ করে স্মারকলিপিতে বর্তমানের ক্রান্তিলগ্নে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password