এবার ভোগ্য পণ্যের বাজার নজরদারি করবে এফবিসিসিআই

এবার ভোগ্য পণ্যের বাজার নজরদারি করবে এফবিসিসিআই

গতকাল শনিবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর টাউন হল মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময়সভায় এফবিসিসিআইয়ের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু বলেন ,আটা-ময়দা, চিনি ও ভোজ্য তেলের বাজার স্থিতিশীল রাখতে তালিকা ধরে ডিলার ও মিল মালিকদের ওপর নজরদারি করবে বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন (এফবিসিসিআই)।

এ লক্ষ্যে সারা দেশে থাকা ডিলার ও মিল মালিকদের তালিকা প্রস্তুত করছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ এই সংগঠন। এ ছাড়া সংকটকে পুঁজি করে যদি কোনো ব্যবসায়ী আগামী কোরবানির ঈদের আগে দাম বাড়ানোর সুযোগ নেন, তবে তাঁদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের নেতারা।

এ সময় ভরা মৌসুমে হঠাৎ করে চালের দাম বাড়ার পেছনে পাইকার ও উৎপাদকদের কারসাজি রয়েছে কি না, তাও খোঁজার ঘোষণা দেন তিনি। ভরা মৌসুমে বাড়ছে চালের দাম। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের অজুহাতে অস্থির আটা-ময়দার বাজার। লবণ ও চিনিও অস্থিরতা দেখাচ্ছে। এই অবস্থায় ঈদুল ফিতরের পর থেকে নিয়মিত রাজধানীর বিভিন্ন বাজার কমিটির নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করে আসছে এফবিসিসিআই। 

তবে কাজের কাজ কিছুই হয়নি। তদারকির মধ্যেই বাজারে প্রতিদিনই বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম। বাজার তদারকির সুফল জানতে চাইলে এফবিসিসিআইয়ের জ্যেষ্ঠ নেতা জানালেন, তালিকা ধরে মিল মালিক ও ডিলারদের নজরদারিতে রাখা হবে। অসাধু ব্যবসায়ীদের অতি মুনাফা প্রবণতা রুখতে দু-এক দিনের মধ্যে চালকল মালিক ও পাইকারদের সঙ্গে বৈঠকে বসবে এফবিসিসিআই। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে মসলা সংকটের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি উল্লেখ করেন মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু।

তিনি বাজার সমিতিগুলোর প্রতি দোকানিদের নিয়ে মসলা, লবণ, চিনি ইত্যাদি খাতভিত্তিক সভা করার, দোকানে নিত্যপণ্যের মূল্যতালিকা টানানোসহ বিশ্ববাজারে পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি ও হ্রাসের সঙ্গে সমন্বয় রেখে সীমিত মুনাফায় ব্যবসা পরিচালনা করতে সব ব্যবসায়ীর প্রতি আহ্বান জানান। মতবিনিময়সভায় তিনি আবারও ১৫ দিন পর পর সয়াবিন তেলের দাম সমন্বয়ের সুপারিশের কথা বলেন। সভায় মোহাম্মদপুর টাউন হল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন কাঁচাবাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো. লুৎফর রহমান (বাবুল) জানান, যেসব দোকানি পণ্য মজুদ ও সরকার নির্ধারিত মূল্যের বেশি দামে পণ্য বিক্রি করার চেষ্টা করেছেন, সমিতি তাঁদের দোকান বন্ধ করে দিয়েছে।

বাজার স্থিতিশীল রাখার স্বার্থে ভবিষ্যতেও একই অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে একই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাজার স্থিতিশীল রাখতে প্রয়োজনের তুলনায় বাড়তি পণ্য না কিনতে ভোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক আবু মোতালেব। মতবিনিময়সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক বিজয় কুমার কেজরিওয়াল, হারুন অর রশীদ, মোহাম্মদপুর টাউন হল সিটি করপোরেশন বাজার সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মুসলিম উদ্দিন শিকদারসহ অন্যরা। প্রসঙ্গত, প্রতিনিয়ত বাজার তদারকি করলেও এখনো কোনো অসাধু ব্যবসায়ীকে চিহ্নিত করতে পারেনি এফবিসিসিআইয়ের বাজার তদারকি কমিটি।

মন্তব্যসমূহ (০)