নওগাঁর মান্দায় পেয়ারা গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

নওগাঁর মান্দায় পেয়ারা গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলায় রিনা খাতুন (২৪) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মৃত রিনা খাতুন উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের মদনচক গ্রামের ইনতাজ আলীর মেয়ে ও একই গ্রামের ময়নুল ইসলামের স্ত্রী। প্রায় দুই মাস আগে সিজারিয়ানের মাধ্যমে তিনি সন্তানের জন্ম দেন। স্থানীয়রা জানান, প্রায় দুইবছর আগে মদনচক গ্রামের ইনতাজ আলীর মেয়ে রিনা খাতুনের সঙ্গে একই গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে ময়নুল ইসলামের বিয়ে হয়। সন্তান প্রসবের জন্য তাঁকে বাবার বাড়িতে আনা হয়েছিল। তবে কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা জানা যায়নি।

মৃতের স্বামী ময়নুল ইসলাম জানান, প্রায় দুই মাস আগে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার একটি ক্লিনিকে সিজারিয়ানের মাধ্যমে স্ত্রী রিনা খাতুন সন্তানের জন্ম দেন। এরপর থেকেই তিনি অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন। সন্তানকে আদর-যত্ন করতেন না। মৃতের বাবা ইনতাজ আলী জানান, সিজারিয়ানের পর থেকে মেয়ে রিনা খাতুন মানষিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। সোমবার সন্ধ্যালগ্ন থেকে তাঁকে বাড়িতে পাওয়া যাচ্ছিল না। খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বাড়ির পেছনের একটি পেয়ারা গাছে তাঁকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে একটি পেয়ারা গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় রিনা খাতুনের মরদেহ পাওয়া যায়। মৃতের গলায় ওড়না পেঁচানো ছিল। পরে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরিসহ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password