সরকার পতনের মধ্যমে শাওন হত্যার জবাব দেয়া হবে: ফখরুল

সরকার পতনের মধ্যমে শাওন হত্যার জবাব দেয়া হবে: ফখরুল

সরকার পতনের মধ্যমে শাওন হত্যার জবাব দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে, মুন্সিগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে নিহত যুবদল কর্মী শহীদুল ইসলাম শাওনের জানাজা সম্পন্ন হয়েছে।

জানাজা পূর্ব বক্তব্যে মির্জা ফখরুল বলেন, শাওনের রক্ত বৃথা যেতে দেয়া হবে না। এদিকে, জানাজাা শেষের আধাঘন্টা পর হঠাৎ করে বের হওয়া মশাল মিছিলকে ঘিরে খানিকটা উত্তেজনাও সৃষ্টি হয় নয়াপল্টনে। এই সরকারের পতন ঘটিয়ে শাওন হত্যার জবাব দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শহীদুল ইসলাম শাওনের জানাজার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, শাওনের রক্ত আমাদের নতুন করে শপথ নেওয়াচ্ছে যে আমরা যেকোনো মূল্যে এই ফ্যাসিবাদী কর্তৃত্ববাদী সরকারের পতন ঘটিয়ে শাওনের আত্মত্যাগের আমরা প্রতিদান দেব। আজকে আমরা শপথ নেব- শাওন যে গণতন্ত্রের জন্য প্রাণ দিয়েছে, মানুষের অধিকারের জন্য প্রাণ দিয়েছে, ভোটাধিকারের জন্য প্রাণ দিয়েছে তাকে আদায় করার জন্য আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাংলাদেশের সকল মানুষ এই কর্তৃত্ববাদী ফ্যাসিবাদী সরকারের পতন ঘটিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবে তবেই হবে শাওনের প্রতি সত্যিকারের শ্রদ্ধা নিবেদন।

তিনি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আসুন, আমরা এখন সবাই তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করব আল্লাহ যেন তাকে বেহেশত নসিব করেন। গত বুধবার মুন্সিগঞ্জ সদরের মুক্তারপাড়ায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে বিএনপির প্রায় ৪০ জন নেতাকর্মী আহত হয়। তাদের মধ্যে একজন হচ্ছেন যুবদলের নেতা শহীদুল ইসলাম শাওন। বিএনপি শ্রদ্ধা শুক্রবার বিকেল ৬টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গ থেকে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে করে শাওন ভুঁইয়ার কফিন নয়া পল্টনে নিয়ে আসা হয়।

দলের পক্ষ থেকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় দলীয় পতাকা দিয়ে ঢাকা তার কফিনে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান। নামাজে জানাজায় বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, মির্জা আব্বাস, আবদুল্লাহ আল নোমান, শাহজাহান ওমর, রুহুল কবির রিজভী, আসাদুজ্জামান রিপন, ফজলুল হক মিলন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, কামরুজ্জামান রতন, মাসুদ আহমেদ তালুকদার, আজিজুল বারী হেলাল, রফিকুল ইসলাম, মীর আলী নেওয়াজ, যুব দলের সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, মোনায়েম সরকারসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের কয়েক হাজার নেতা-কর্মী অংশ নেয়। জানাজা শেষে শাওন ভুঁইয়াকে দাফন করতে মুন্সিগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হয়। শাওনের কফিন নয়া পল্টনের সড়কে নেতাকর্মীরা মিছিল করে এগিয়ে দেয়। পরে কর্মীরা মশাল মিছিল বের করে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password