মহানবীকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ কাতার,কুয়েত ও ইরান,ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব

মহানবীকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ কাতার,কুয়েত ও ইরান,ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব

ভারতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে বিজেপির দুই নেতার বিতর্কিত মন্তব্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে মুসলিম বিশ্ব। তীব্র নিন্দা জানিয়েছে সৌদি আরব। বিজেপি মুখপাত্রের বক্তব্যকে অবমাননাকর বলে মন্তব্য করেছে দেশটি। এ ঘটনায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ জানিয়েছে কাতার, কুয়েত ও ইরান। এছাড়া আরো অনেকগুলো মুসলিম রাষ্ট্র থেকেই এই বক্তব্যের নিন্দা জানানো হয়েছে।

এর আগে রোববার ভারতের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে প্রতিবাদ জানায় কাতার, কুয়েত ও ইরান। কাতার জানায়, এ ধরনের মন্তব্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে মানবাধিকার সুরক্ষায় ব্যাঘাত ঘটবে। এদিকে, এমন মন্তব্যের জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে কুয়েত। ভারত সরকার বলছে, ভিন্নমত পোষণকারী কম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা এমন মন্তব্য করেছে। এটি ভারত সরকারের মতামত নয়। এজন্য তাদের দুজনকেই বিজেপি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

রোববার বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দল সমস্ত ধর্মকে সম্মান করে এবং যে কোনো ধর্মীয় ব্যক্তির অবমাননার তীব্র নিন্দা করে। বিজেপির সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিং এক বিবৃতিতে বলেছেন, দল যে কোনো সম্প্রদায়ের ধর্মীয় ভাবাবেগকে সম্মান জানায়। কোনো ধর্মের অপমান বিজেপি বরদাস্ত করে না। ভারতের হাজার বছরের ইতিহাসে প্রতিটি ধর্মেরই বিকাশ ঘটেছে। বিজেপি সব ধর্মকে সম্মান করে।

যে কোনো ধর্মের কোনো ধর্মাবলম্বী ব্যক্তির অবমাননার তীব্র নিন্দা করে বিজেপি। নুপুর শর্মার সদস্য পদ বাতিলের পাশাপাশি নবীন জিন্দালকেও শাস্তি দেয়া হয়েছে দলের তরফ থেকে। তিনি টুইটারে এক পোস্টে ইসলামের নবীকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করলে তাকে এই শাস্তি দেয়া হয়।

গত সপ্তাহে এক টিভি বির্তকে হজরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করেন বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা। অন্যদিকে, বিজেপির দিল্লির মুখপাত্র নাভিন কুমার জিন্দাল টুইটারে মন্তব্য করেন। এদিকে, দলের সিদ্ধান্তের পর উভয়েই তাদের মন্তব্য প্রত্যাহার করেছেন।

মন্তব্যসমূহ (০)