বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা

কলেজ ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে অনৈতিক সর্ম্পক স্থাপনের পর বিয়ে না করার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকের বিরুদ্ধে। স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে প্রেমিক ইকবাল হোসেনের বাড়িতে অবস্থান করছেন ওই কলেজ ছাত্রী। ইকবাল নাটোরের গুরুদাসপুরে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের বৃ-গড়িলা গ্রামের সৈয়দ আলী মন্ডলের ছেলে। ইকবাল নাটোর এনএস কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র। প্রতারিত মেয়েটি ইকবালের প্রতিবেশী ও নাজিরপুর ডিগ্রী কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী।

জানা যায়, ইকবাল একজন মাদকাসক্ত। তার বাবা মা তাকে সুস্থ রাখার জন্য ওই মেয়ের সাথে বিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। মেয়েটির সরলতার সুযোগে ইকবাল একাধিকবার তার সাথে মেলামেশা করে। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকার প্রধান আব্দুল গণি, মজিদ মন্ডল, মিজান ও জিয়া প্রামানিক সহ স্থানীয়রা বিয়ে দিয়ে ঘটনাটি মিমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এদিকে মাদক নিরাময় কেন্দ্র থেকে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে মেয়েটিকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় ইকবাল।

মেয়েটিকে বাড়িতে ঢুকতে না দিয়ে ইকবালের পরিবারের লোকজনও তার সাথে দূর্ব্যবহার করে। বাধ্য হয়ে বাড়ির গেটেরে সামনেই স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে অনশন করছে ওই প্রেমিকা। রবিবার (১২ জুন) সকাল থেকে প্রেমিক ইকবালের বাড়ির সামনে অবস্থান নেওয়া মেয়েটি জানায়, আমাকে স্ত্রীর মর্যাদা না দিলে মরণ ছাড়া আমার উপায় নেই। ইকবালকে বাড়িতে না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া যায়নি। তবে তার বাবা-মা এবিষয়ে কোনো বক্তব্য দেননি। তবে এ পর্যন্ত (রাত ৯ টা) মেয়েটি ওই বাড়ির সামনে এখনো অবস্থান করছেন। গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আব্দুল মতিন বলেন, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্যসমূহ (০)