নওগাঁর সাপাহারে ঘুমের মধ্যে গৃহবধূর মাথার চুল কাটার অভিযোগের আটক ২

নওগাঁর সাপাহারে ঘুমের মধ্যে গৃহবধূর মাথার চুল কাটার অভিযোগের আটক ২

নওগাঁর সাপাহারে রাতে ঘুমের মধ্যে এক গৃহবধূর মাথার চুল কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে গৃহবধূর শ্বশুর ও ভাশুরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর আগে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার আইহাই ইউনিয়নের আইহাই দিঘিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে শ্বশুর-শাশুড়িসহ তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন ওই গৃহবধূ। এজাহারে বলা হয়, গ্রামের আশরাফ আলীর ছোট ছেলে জোবায়ের হোসেনের সঙ্গে হাজীপাড়ার বাবু শেখের মেয়ের চার বছর আগে বিয়ে হয়। জোবায়ের পেশায় নির্মাণশ্রমিক, তিনি চট্টগ্রামে কাজ করেন ও মাঝেমধ্যে বাড়ি আসেন। এ সময় তার স্ত্রী কখনও বাবার বাড়ি আবার কখনও শ্বশুরবাড়িতে থাকেন। ৩ দিন আগে ওই গৃহবধূ শ্বশুরবাড়ি আসেন। মঙ্গলবার রাতে তিনি নিজের ঘরেই ঘুমিয়ে পড়েন। রাত দেড়টার দিকে ঘুম ভাঙলে তিনি দেখেন তার মাথার চুল গোছা ধরে কেটে কেউ ঘরের মেজেতে ফেলে রেখেছে।

এ ঘটনায় পরদিন সকালে স্বামীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তার বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। পরে গৃহবধূ এ ঘটনা তার মাকে জানালে তিনি এসে মেয়েকে সঙ্গে করে তাদের বাড়িতে আসতে চাইলে শ্বশুরবাড়ির লোকজন বাধা দেন। পরে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে গৃহবধূকে উদ্ধার করে তার মায়ের জিম্মায় দেয়। গৃহবধূর মা অভিযোগে বলেন, ‘মেয়েকে সঙ্গে করে নিয়ে যেতে চাইলে তার শ্বশুর বাধা দেন। নিরুপায় হয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে যাই। চেয়ারম্যান জিয়াউজ্জামান টিটু বিষয়টি জানার পর পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে আমাদের উদ্ধার করে। বিকেলে থানায় গিয়ে আমার মেয়ে মামলা করে।’

ওই গৃহবধূ বলেন, ‘রাতে ঘুমিয়ে ছিলাম। মধ্যরাতে ঘুম ভাঙলে দেখি আমার মাথার চুল ছোট হয়ে গেছে। ঘরে আলো জ্বালিয়ে দেখি মেঝেতে অনেক চুল পড়ে আছে। এ নিয়ে শ্বশুর-শাশুড়িকে জানালে তারা ঝগড়া লোগিয়ে উল্টো আমাকেই নানা বাজে কথা বলতে থাকেন। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।’ তবে গৃহবধূর শ্বশুর আশরাফ আলী ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, ‘ছেলের অবর্তমানে পরিবারের লোকজনকে হয়রানি করতে ছেলের বউ নাটক সাজিয়েছে। আমার ছেলের বউয়ের সঙ্গে পরিবারের কারও কোনো মনোমালিন্য হয়নি।’

সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার বলেন, ‘ওই গৃহবধূ তার শ্বশুর, শাশুড়ি ও ভাশুরের নামে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। তার শ্বশুর ও ভাশুর মোশারফ হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ তাদের আদালতে তোলা হবে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password