পেলের নামে হচ্ছে না মারাকানা স্টেডিয়াম

পেলেকে শ্রদ্ধা জানাতে বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়াম তার নামে করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু শহরবাসীর প্রতিবাদের মুখে বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) এই পরিকল্পনা থেকে সরে আসলো রিও ডি জেনিরো সরকার। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালের এই ভেন্যুতে হয়েছিল ২০১৬ সালের অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। বিখ্যাত এই স্টেডিয়ামের নামটি ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তির নামে করার আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব এসেছিল গত মাসে। রিও ডি জেনিরোর আইনসভার ভোটে স্টেডিয়ামটির নাম সংক্ষেপে ‘কিং পেলে স্টেডিয়াম’ করার সিদ্ধান্ত হয়।

কিন্তু এতে ভেটো দেন রাজ্য সরকার ক্লাউদিও কাস্ত্রো। ফুটবল ভক্তরাও তীব্র বিরোধিতা করে। ১৯৪০ সালে স্টেডিয়ামটি নির্মাণে তদবির করা সাংবাদিক মারিও ফিলহোর নামই আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যবহার করা হতো। যদিও অধিকাংশ ব্রাজিলিয়ান একে সহজ ভাষায় মারাকানা নামে ডাকে। বিরোধিতাকারীদের মতে, রিওর বাসিন্দা নয় কিংবা রাজ্যটির কোনও ক্লাবে খেলেননি এমন কারও নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ করা ঠিক হবে না। তিনবারের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মিনাস জেরাইস রাজ্যে জন্ম নেন এবং বেশির ভাগ সময় সাও পাওলোয় কাটিয়েছেন।

এই প্রকল্পের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন পেলের ১৯৭০ সালের বিশ্বকাপ জয়ী দলের জের্সন ও মারিও ফিলহোর নাতি। জের্সন একে ‘অযৌক্তি’ বলেছেন। এমন দাবির মুখে পড়ে রাজ্য আইনসভা তাদের প্রস্তাব ফিরিয়ে নিয়েছে। গত বছর ৮১ তে পা দেওয়া পেলে ব্রাজিলের হয়ে এই স্টেডিয়ামে অনেক ম্যাচ খেলেছিলেন। ১৯৬৯ সালে এই মাঠেই করেন ক্যারিয়ারের হাজারতম গোল, সান্তোসের হয়ে স্থানীয় ক্লাব ভাস্কো ডা গামার বিপক্ষে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন