অবসরে যাওয়ার ঘোষণা আশিষ নেহেরার

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

ভারত-অস্ট্রেলিয়ার চলমান সিরিজে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে আবসরের ঘোষণা দিলেন ভারতীয় পেসার আশিষ নেহেরা। চলমান সিরিজে ডাক পাওয়ার পর জানিয়েছিলেন নিজের লক্ষ্যের কথা। বলেছিলেন একাদশে যায়গা পেলে নিজের সেরাটা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত তিনি।

কিছুদিন আগে হুট করে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে ডাক পান ৩৮ বছর বয়সী নেহরা। দলে ডাক পেলেও প্রথম দুই ম্যাচে একাদশে জায়গা পাননি ৩৮ বছর বয়সী এই পেসার। ভারতীয় গণমাধ্যমের দাবি, একাদশে জায়গা না পাওয়ার ক্ষোভ থেকেই ক্যারিয়ারের ইতি টানছেন বাঁ-হাতি এই পেসার। শুধু আন্তর্জাতিক নয়, ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগসহ (আইপিএল) সব ধরনের ঘরোয়া ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

আশিষ নেহরা অবশ্য জানিয়েছেন, নিজের ইচ্ছায় অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। নিজের ঘরের মাঠ দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে শেষ ম্যাচ খেলে ১৮ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারের ইতি টানার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। আগামী এক নভেম্বর দিল্লিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়ে সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে চান ভারতের হয়ে এখন পর্যন্ত ১৭ টেস্ট, ১২০ ওয়ানডে ও ২৬ টি-টোয়েন্টি খেলা নেহরা।

১৯৯৯ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলা শুরু করেন নেহরা। ওয়ানডেতে অভিষেক ২০০১ সালে। ২০০৪ থেকে সাদা পোশাকে খেলছেন তিনি। ইনজুরির কারণে ২০০৫ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০০৯ সালের জুন পর্যন্ত একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচও খেলতে পারেননি। তবে দমে যাননি। আইপিএলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে ফেরেন জাতীয় দলে।২০১১ বিশ্বকাপে ভারতের পেস বোলিংয়ের মূল ভরসা হয়ে ওঠেন তিনি।

২০১১ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে দলকে ফাইনালে তোলার পথে বিশেষ ভূমিকা রাখেন তিনি। কিন্তু সেমি ফাইনালে আঙুল ভেঙে যাওয়ায় ফাইনাল খেলা হয়নি নেহরার। ২০১১ বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে খেলেছেন শেষ ওয়ানডে ম্যাচটি। আইপিএলে দুর্দান্ত পারফর্ম করে দীর্ঘ পাঁচ বছর ২০১৬ সালে পর আবারও ফেরেন জাতীয় দলে। ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে জাতীয় দলে নিয়মিত হলেও কেবল টি-টোয়েন্টি খেলেছেন তিনি। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন নেহরা।

ফেসবুক মন্তব্য
Share.