মৃত্যুপথযাত্রীর শেষ ইচ্ছাপূরণ করলেন চিকিৎসক

ভয়াল করোনার রুদ্ররূপ দেখছে চীন। প্রতি মুহূর্তে যেমন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, তেমনই বাড়ছে মৃত্যু। এই মৃত্যু যেমন ভয়ানক, তেমনই আত্মীয়পরিজন বর্জিত।

রোগী জানে যে তার অন্তিম সময় আসন্ন, কিন্তু শেষবারের মতো প্রিয়জনের মুখ দেখার কোনও উপায় নেই। শেষ ইচ্ছা মনের গভীরে রেখেই পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে হচ্ছে করোনা আক্রান্তদের। এমন পরিস্থিতিতে অশীতিপর এক বৃদ্ধের শেষ ইচ্ছাপূরণে এগিয়ে এল উহান হাসপাতাল। মৃত্যু পথযাত্রীকে দেখাল সূর্যাস্ত।

বয়স তাঁর ৮৭ বছর। বহুদিন ধরে ইউহান হাসপাতালে করোনা নিয়ে ভরতি তিনি। এক এক দিন এক এক রকম চিকিৎসায় নাভিশ্বাস ওঠার জোগাড়। কিন্তু তাও বাঁচার আশা পরিত্যাগ করেননি তিনি। প্রতিনিয়ত লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু ডাক্তারদের মনে হচ্ছে শেষ রক্ষা সম্ভবত হবে না। বয়সের ভারে প্রথম থেকেই তিনি নুব্জ। তার উপর শরীরে বাসা বেঁধেছে করোনার মতো প্রাণঘাতী ভাইরাস। তাই সংকট বাড়ছে প্রতি মুহূর্তে। যে কোনও সময় পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিতে হতে পারে লড়াকু ওই বৃদ্ধকে।

এমন পরিস্থিতিতে কয়েকদিন আগে সিটিস্ক্যানের জন্য তাঁকে নিয়ে যাচ্ছিলেন এক চিকিৎসক। তিনি জানতেন, রোগীর মৃত্যু আসন্নপ্রায়। কিন্তু হাজার হোক তিনি তো ডাক্তার। তাই সেকথা রোগীকে স্পষ্ট করে বলতে পারেননি। শুধু জিজ্ঞাসা করেছিলেন, ‘সূর্যাস্ত দেখবেন?’

উৎফুল্ল হয়ে উঠেছিলেন অশীতিপর বৃদ্ধ। আর হবেন নাই বা কেন? কতদিন পর খোলা আকাশের নিচে যাবেন তিনি, সূর্যাস্ত দেখবেন। ক্লান্ত মুখ ভরে উঠেছিল উজ্জ্বল হাসিতে। রোগীর ইচ্ছাকে মর্যাদা দেন ডাক্তারও। মৃত্যু পথযাত্রী করোনা আক্রান্তকে নিয়ে তিনি হাজির হন হাসপাতালের বাইরে, খোলা জায়গায়। ডাক্তার ও রোগী, একসঙ্গে দেখেন সেদিনের সূর্যাস্ত।

টুইটারে সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়েছে মানবিকতায় ভরা এই ছবি। তারপর মুহূর্তে ভাইরাল সেই ফটোগ্রাফ। চিনা চিকিৎসকের মানবিকতা হৃদয় ছুঁয়ে যায় নেটিজেনদের। কেউ লেখেন, দিনের সেরা ছবি। কেউ আবার লেখেন, মানবিকতার সুন্দর নিদর্শন।

তবে এই একটা উদহরণই নেই। করোনার আঁতুড়ঘর চিনে সম্প্রতি বহু করকোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। সেই আনন্দ নিজের মধ্যে আটকে রাখতে পারেননি ওই হাসপাতালের মেডিক্যাল অ্যাটেনডেন্ট। হাসপাতালের সামনে আনন্দে নাচ করতে শুরু করে দেন তিনি। সেই ভিডিও-ও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন