পেট পরিষ্কার রাখার কয়েকটি উপায়

সকাল সকাল পেট পরিষ্কার না হলে সারাদিন একটা অস্বস্তি কাজ করে। যদি পেটের সমস্যা থাকে, পেট পরিষ্কার না হয়, তাহলে আজ কয়েকটি ঘরোয়া প্রতিকারের সম্পর্কে জেনে নিন-

১. পানিতে ভাসিয়ে দিন
হজমশক্তি ঠিক থাকলে তবেই পেট সাফ হবে। তাই হজমশক্তি ভালো রাখতে প্রচুর পানি খান। প্রতিদিন নিয়ম মেনে ৬ থেকে ৮ গ্লাস পানি পান করুন।
আপনার খাদ্য তালিকায় সেসব সবজি ও ফল রাখুন যাতে পানি রয়েছে। লাউ, কাঁচা টমেটো, তরমুজ, পেঁপে, আপেল ইত্যাদি। এর থেকেও শরীরে পানিতের যোগান সঠিক পরিমানে হয়। ফলে পাচন ক্রিয়া সক্রিয় থাকে। খাবার ঠিক মত হজম হয়।

পানি খাওয়ার এই অভ্যাস কয়েক সপ্তাহ ধরে মেনে চলুন আপনার পেটের সমস্যা কমে যাবে। পেট একদম পরিষ্কার থাকবে।

২. সন্ধক লবন
যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে বা যাদের প্রতিদিন পেট পরিষ্কার হয় না ভালো করে তাদের জন্য এই পদ্ধতি ব্যাপক কার্যকরী।

সকাল সকাল উঠেই উষ্ণ গরমপানিতে ২ চা চামচ সন্ধক লবন মিশিয়ে খালি পেটে খেয়ে নিন। খাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই দেখবেন আপনার পা বার্থরুমের দিকে চলতে শুরু করেছে।

সকাল সন্ধ্যে দুবার এটি খালিপেটে খাওয়া যেতে পারে। তবে খাওয়ার পর দুবার বার্থরুম যেতে হতে পারে।

৩. মৌরি + জিরার গুঁড়ো
২ চা চামচ মৌরি ও ২ চামচ জিরার গুঁড়ো নিন। হালকা আঁচে কড়াইয়ে নেড়ে নিন। তারপর গুঁড়ো করে একটি পাত্রে রেখে দিন। প্রতি ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা অন্তর অন্তর অল্প অল্প করে খান।

৪. ইসবগুল
ইসবগুল পেটে পরিষ্কার করে অনেকেই জানেন। কিন্তু যারা খান না তাদের বলবো, আলস্য ছেড়ে এবার থেকে রোজ রাতে ঘুমানোর আগে ইসবগুল খাওয়ার অভ্যাস করুন। দেখবেন সকাল সকাল পেট হালকা হয়ে যাবে চোখের নিমেষে।

৫. জোয়ান
জোয়ান খাওয়া পেটের জন্য খুবই ভালো। একটি বোতলে জোয়ান ভরে বিছানার পাশে রেখে দিন। রোজ রাতে এক চিমটে জোয়ান খেয়ে পানি খান এক গ্লাস। এতে গ্যাসের সমস্যা থাকলে তা সকালে উঠলেই হালকা হয়ে যাবে। আর পেট হবে সাফ।

৬. তুলসী পাতা
সকালে তুলসী গাছের কয়েকটি পাতা চিবিয়ে খালি পেটে খান। এটি আপনার দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে এবং হজমশক্তি বাড়াবে।

৭. অ্যালোভেরা (ঘৃতকুমারী) জুস
অ্যালোভেরার রস জুস হিসেবে খেলে অন্ত্রে পানিতের পরিমাণ বেড়ে যায়। গবেষণা থেকে জানা গেছে যে অন্ত্রে থাকা পানি মল পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। আপনার যদি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হয় তবে আপনার প্রতিদিনের রুটিনে অ্যালোভেরার জুস আজই অ্যাড করা উচিত।

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী শরীরের নানা অংশের জন্য উপকারি। পেটের সাথে সাথে স্কিন, চুলের জন্য এটি আপনারা খেতে পারেন।

৮. তিসি
তিসির বীজ বা ফ্লেক্সসিড পিষে এক চামচ পাউডার তৈরি করুন। এক গ্লাস পানিতে এটি মিশিয়ে সকালে ব্রেকফাস্টের আধা ঘন্টা আগে এটি পান করুন। আবার রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে।

৯. হিঙ
এক চা চামচ হিঙ একগ্লাসে পানিতে মিশিয়ে পান করুন সপ্তাহে তিনবার করে এটি আপনার খাবার হজম হতে সাহায্য করবে।

১০. ক্যাস্টর অয়েল + কমলা লেবুর রস
উষ্ণ জ্বলে ২ চা চামচ কমলা লেবুর রস ও ২ চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অন্তর পান করুন। যতক্ষণ না পেট পরিষ্কার হচ্ছে এটি খান। দেখবেন দুবার খাওয়ার পরই বার্থরুম যেতে হচ্ছে। কমলা লেবু সব সময় পাওয়া যায় না। না পেলে পাতিলেবু ব্যবহার করতে পারেন।

সতর্কতা: উপরে অনেকগুলি উপায় ব্যাখ্যা করেছি। আপনি যদি অন্য পদ্ধতি থেকে উপকৃত না হন তবেই ক্যাস্টর অয়েল পদ্ধতিটি ব্যবহার করুন। এবং হ্যাঁ, এভাবে আপনার পেট পরিষ্কার করার ঠিক ২ মাস পরে আবার এটি ট্রাই করবেন। ঘনঘন এটি ব্যবহার করবেন না।

অস্বীকৃতি: পেট পরিষ্কার করার জন্য আমরা আপনাকে ঘরোয়া প্রতিকার বা আয়ুর্বেদিক প্রতিকার সম্পর্কে জানালাম। যদিও এতে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই, তবুও যদি আপনার আরও সমস্যা হয় তবে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী চলবেন। এখানে দেওয়া কোনও তথ্যের পরিনাম খারাপ হলে তার জন্য আমরা দায়ী থাকবো না।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন