ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব আল হাসান

এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সময়টা মোটেও উপভোগ করছেন না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফরম্যান্স হচ্ছে না তারউপর আজ আবার মাঠে মেজাজ হারিয়ে বিতর্কিত কান্ড করে বসলেন। টানা তিন জয় ও টানা তিন পরাজয় নিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আজ আবহনীর বিপক্ষে মাঠে নামে সাকিবের মোহামেডান। চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষেই মাঠে মেজাজ হারিয়ে ফেলেন সাকিব আল হাসান।

তার বলে মুশফিকের বিরুদ্ধে লেগ বিফোরের আবেদন আম্পায়ার নাকোচ করে দিলে লাথি মেরে স্ট্যাম্প ভেঙে ফেলেন। এরপর ৫.৫ ওভারের সময় আম্পায়ার বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ করে দিলে মেজাজ হারিয়ে সাকিব আল হাসান স্ট্যাম্প তুলে ছুড়ে মারেন। মাঠে সাকিব আল হাসানের মেজাজ হারানোর বিষয়টা নতুন কিছু নয়। তবে এবারের ব্যাপারটা যেন একটু বেশি হয়ে গেছে। বিশেষ করে সাকিব আল হাসানের মতো বিশ্বসেরা খেলোয়াড়ের কাছ থেকে এমন ব্যাবহার মোটেও প্রত্যাশিত নয়। এখন পযর্ন্ত তার শান্তির ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি। তার কী শাস্তি হবে তা নিশ্চিত করতে পারেননি বিসিবির পরিচালক ও সিসিডিএমের চেয়ারম্যান কাজী ইনাম। তিনি বলেন, ম্যাচ অফিসিয়াল অর্থাৎ অনফিল্ড আম্পায়ারদের ও ম্যাচ রেফারির রিপোর্টের ভিত্তিতে তার শাস্তি হবে। ম্যাচের যে কোনো ঘটনায় শাস্তি দেওয়ার প্রয়োজন হলে তা ম্যাচ রেফারি দিতে পারেন।

তবে সাকিব আল হাসান এই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছেন। আবাহনীর বিপক্ষে বৃষ্টি আইনে ৩১ রানে জয়ের পরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন মোহামেডানের অধিনায়ক সাকিব লিখেন, ‘প্রিয় ভক্ত এবং অনুসারীরা, আমি অত্যন্ত দুঃখিত আমার মেজাজ হারানোর জন্য এবং ম্যাচটা সবার জন্য শেষ করে দেওয়ায় জন্য, বিশেষত যারা বাড়ি থেকে খেলাটা দেখছেন দেখছিলেন। আমার মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ের উচিত ছিল না সেভাবে প্রতিক্রিয়া জানানো। কিন্তু কখনও কখনও সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে এটি দুর্ভাগ্যজনকভাবে ঘটে। এই মানবিক ত্রুটির জন্য আমি দল, ম্যানেজমেন্ট, টুর্নামেন্টের কর্মকর্তা এবং সাংগঠনিক কমিটির কাছে ক্ষমা চাইছি। আশা করি, ভবিষ্যতে আর এটির পুনরাবৃত্তি হবে না। আপনাদের ধন্যবাদ এবং সবার জন্য ভালবাসা’।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password